করোনাভাইরাসের আবহে রাষ্ট্রসঙ্ঘের ৭৫তম সাধারণ সভায়  আজ  ভার্চুয়ালে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সূচি অনুযায়ী, শনিবারের এই সাধারণ সভায় ভারতের প্রধানমন্ত্রীই প্রথম বক্তা। রাষ্ট্রসঙ্ঘের এবারের ভাষণে মূলত সীমান্ত সন্ত্রাসবাদ নিয়েই বক্তব্য রাখতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন-বাংলা যেন জঙ্গিদের আঁতুড়ঘর, আল কায়দা যোগে রাতের অন্ধকারে ফের মুর্শিদাবাদ থেকে আটক যুবক

রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় ভারতের অগ্রাধিকারের দিকে মনোনিবেশ করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে। মূলত তিনি ভারতীয় সীমান্ত সন্ত্রাসবাদ বৃদ্ধি নিয়ে বক্তব্য রাখবেন। শুধু তাই নয়, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক স্তরে দমনমূলক নীতির জন্য পরামর্শ দিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী। 

আরও পড়ুন-নীতিশ বনাম বিজেপি, এবারের বিহারের ভোট কি শেষ পর্যন্ত দুই জোটসঙ্গীর ঠান্ডা লড়াই

পাশাপাশি, রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্যের মধ্যে এখনও অন্তর্ভুক্ত নয় ভারত। ২০২১ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত অস্থায়ী সদস্য হিসেবে রয়েছে। এই অবস্থায় নিরাপত্তা পরিষদে তালিকাভুক্ত করার জন্য রাষ্ট্রসঙ্ঘের কাছেও স্বচ্ছতার উপর জোর দেওয়ার কথা বলবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। 

আরও পড়ুন-'নিউ নর্মাল'-এ প্রথম নির্বাচন, ভোট প্রক্রিয়ায় কতটা অদলবদল ঘটালো কমিশন

কেননা, রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের স্থায়ী সদস্যের জন্য ভেটো ক্ষমতায় বারাবার বাধা দিয়েছে চিন। লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনার জেরে ভারতের সঙ্গে চিনেক কূটনৈতিক সম্পর্ক এখন তলানিতে। এই অবস্থায় নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী সদস্যের জন্য ভারতের প্রতি স্বচ্ছতার বার্তা তুল ধরতে পারেন নরেন্দ্র মোদী।