শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর), প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর ৯৬তম জন্মবার্ষিকীতে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন ভারত অটলবিহারী বাজপেয়ীর প্রচেষ্টা সর্বদা স্মরণ করবে। টুইট করেন, 'তাঁর দূরদর্শী নেতৃত্ব দেশকে উন্নয়নের অভূতপূর্ব উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছে'।

এদিন সকালে 'সদৈব অটল' অর্থাৎ অটলবিহারী বাজপেয়ীর স্মারকে পুষ্পার্ঘ দিয়ে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে শ্রদ্ধা জানান, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শ্রদ্ধা জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ, রাজনাথ সিং, নির্মলা সীতারমণ এবং পীযূষ গয়াল-ও।

অটলবিহারী বাজপেয়ীর স্মরণে বিজেপি সরকার ২৫ ডিসেম্বর তারিখটিকে 'সুশাসন দিবস' হিসাবে পালন করে। প্রধানমন্ত্রী মোদী এদিন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সংসদে 'অটল বিহারী বাজপেয়ী ইন পার্লামেন্ট: আ কোমেমোরেটিভ ভলিউম' নামে একটি গ্রন্থও প্রকাশ করেন। লোকসভা সচিবালয় থেকে এই গ্রন্থটি প্রকাশ করা হল। এতে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপরেয়ীর জীবন ও কাজকে তুলে ধরা হয়েছে। সংসদে তাঁর উল্লেখযোগ্য বক্তৃতাগুলিও নথিবদ্ধ করা হয়েছে এই গ্রন্থে। এছাড়া বইটিতে তাঁর জীবনের বেশ কিছু বিরল ছবিও রয়েছে।

এদিন, একইসঙ্গে ভারতরত্ন পণ্ডিত মদনমোহন মালব্য-রও জন্মবার্ষিকী। সংসদে সেন্ট্রাল হলে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং অন্যান্য সাংসদরা পন্ডিত মদনমোহন মালব্য এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। পণ্ডিত মালব্যকে স্মরণ করে নরেন্দ্র মোদী টুইট করে বলেন, 'তিনি তাঁর সম্পূর্ণ জীবন সমাজ সংস্কার ও দেশের সেবায় উত্সর্গ করেছিলেন। দেশের জন্য তাঁর অবদান পরবর্তী প্রজন্মদের অনুপ্রাণিত করবে'।