Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Prashant Kishor: 'ঐশ্বরিক অধিকার নয়', মমতা বনাম কংগ্রেস যুদ্ধ শুরু হতেই রাহুলকে আক্রমণ পিকের

বৃহস্পতিবার, নাম না করে কংগ্রেস (Congress) দলের নেতৃত্বে রাহুল গান্ধীর (Rahul Gandhi) যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন ভোট-কুশলী প্রশান্ত কিশোর (Prashanta Kishor)। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) সঙ্গে কংগ্রসের যুদ্ধ শুরু হওয়ার একদিন পরই এল এই মন্তব্য। 
 

Prashant Kishor launches veiled attack on Rahul Gandhi ALB
Author
Kolkata, First Published Dec 2, 2021, 2:52 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

এতদিন যা ছিল আড়ালে আবডালে, বুধবার তাই এসে গিয়েছে একেবারে প্রকাশ্যে। বিজেপি বিরোধী জোটের নেতৃত্ব নিয়ে সরাসরি যুদ্ধ বেঁধেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এবং জাতীয় কংগ্রেসের (Congress) মধ্যে। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার, নাম না করে রাহুল গান্ধীর (Rahul Gandhi) নেতৃত্বদানের ক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন ভোট-কুশলী প্রশান্ত কিশোর (Prashanta Kishor)। কংগ্রেস দল নয়, কংগ্রেস দলের নেতৃত্বকে তীব্র আক্রমণ করলেন তিনি। গত ১০ বছরে নির্বাচনে কংগ্রেস দলের পারফরম্যান্সের পরিসংখ্যান তুলে ধরে, বিরোধী নেতৃত্বের 'গণতান্ত্রিকভাবে' সিদ্ধান্ত গ্রহণের পক্ষে সওয়াল করেছেন তিনি। 

এদিন, একটু টুইট করেছেন প্রশান্ত কিশোর। মমতা ও শরদ পওয়ার (Sharad Pawar) যতই কংগ্রেসহীন জোটের সম্ভাবনা উসকে দিন না কেন, আইপ্যাকের প্রতিষ্ঠাতা কিন্তু প্রকারান্তরে, মেনে নিয়েছেন বিজেপি বিরোধী শিবিরে শতাব্দী প্রাচীন কংগ্রেস দলের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তিনি লিখেছেন কংগ্রেস যে 'রাজনৈতিক মতবাদ এবং রাজনৈতিক অবস্থানের প্রতিনিধিত্ব' করে তা একটি শক্তিশালী বিরোধী গোষ্ঠী গঠনের জন্য 'অত্যাবশ্যক'। এরপরই অবশ্য কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। বলেন, কংগ্রেসের নেতৃত্ব, কোনও এক ব্যক্তির 'ঐশ্বরিক অধিকার' নয়। তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বে কংগ্রেস গত ১০ বছরে ৯০ শতাংশের বেশি নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে। এই অবস্থায় বিরোধী জোটের নেতৃত্বের ভার কাকে দেওয়া হবে, সেটা কংগ্রেস নয় বিরোধীরা গণতান্ত্রিকভাবে সিদ্ধান্ত নেবেন - এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন - Congress: তৃতীয় ফ্রন্টের পালে বাতাস গুলাম নবি আজাদের, খোলাখুলি বললেন এই কথা

আরও পড়ুন - Mamata Vs Congress: মমতার পুরোনো ষড়যন্ত্র, পিছনে আছেন মোদী - বিস্ফোরক অধীর

আরও পড়ুন - Congress Vs Mamata: 'নিছক স্বপ্ন' - মমতাকে ছেড়ে কথা বলল না কংগ্রেস

বুধবরাই, তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুম্বইয়ে জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টির (NCP) প্রধান শরদ পওয়ারের সঙ্গে সাক্ষাত করেন। দেখা করেন শিবসেনার (Shiv Sena) সঞ্জয় রাউত (Sanjay Raut) এবং আদিত্য ঠাকরের (Aditya Thackeray) সঙ্গেও। শরদ পওয়ারের সঙ্গে বৈঠকের পর, সরাসরি কংগ্রেসের দিকে আক্রমণ শানিয়েছিলেন মমতা। বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য কংগ্রেস যথেষ্ট কাজ করছে না বলে অভিযোগ করেন। বলেন, 'এখন কোন ইউপিএ (UPA) নেই'। তার একদিন পরই প্রশান্ত কিশোরের এই মন্তব্য এল। ফলে, কংগ্রেসকে যে আর রেয়াত করে চলবে না বিরোধী দলগুলি, তা বারেবারেই বুঝিয়ে দিচ্ছে তারা। 

প্রশান্ত কিশোরের সেই টুইট -

২০১৪ সাল পর্যন্ত কেন্দ্রে সরকার চালিয়েছিল ইউপিএ। সেই জোটে এনসিপি এবং তৃণমূল কংগ্রেস দুই দলই ছিল। কিন্তু, পরপর দুটি লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ভরাডুবি এবং তারপর বিহার ও পশ্চিমবঙ্গ-সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ক্রমাগত রক্তক্ষয়ের পর, নেত-ক্বের বিষয়ে শতাব্দী প্রাচীন দলের উপর আর আস্থা রাখতে পারছেন না অন্যান্য বিজেপি বিরোধী দলগুলি। এর আগে ইউপিএ-র চেয়ারপার্সন পদে সনিয়া গান্ধীকে (Sonia Gandhi) সরিয়ে শরদ পওয়ারকে বসানোর জল্পনা চলছিল বিরোধী দলগুলির মধ্যে। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিকে সফলভাবে রুখে দেওয়ার পর, সেই জায়গায় নতুন মুখ হিসাবে উত্থান ঘটেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর তাঁর পিছনে রয়েছেন প্রশান্ত কিশোর। 

মমতার আগে শরদ পওয়ার-সহ বিভিন্ন বিরোধী নেতার সঙ্গে মমতার দূত হয়ে প্রাথমিক কথা চালিয়েছিলেন প্রশান্ত কিশোর। কংগ্রেস নেতৃত্বের সঙ্গেও বৈঠক করেছিলেন তিনি। তবে, তা বোধহয় বিশেষ ফলপ্রসু হয়নি। সম্প্রতি মেঘালয়ে (Meghalaya) প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মুকুল সাংমা-সহ (Mukul Sangma) যে ১২জন কংগ্রেস বিধায়ক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন, তার পিছনেও প্রশান্ত কিশোরের আইপ্যাকের হাত ছিল। 
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios