প্রাথমিক স্কুল শিক্ষকদের হাজিরা নিশ্চিত করতে জারি করা হল এক অদ্ভুত নির্দেশিকা। স্কুলে উপস্থিতি নিশ্চিত করতে এবার থেকে শিক্ষকদের একটি করে সেলফি তুলতে হবে। এমনই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে উত্তরপ্রদেশের বারাবানকি-তে।

শুধু তাই নয়, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রতিদিন সকাল ৮টার মধ্যে স্কুলে উপস্থিত হয়ে একটি করে সেলফি তুলে সেই সেলফি পাঠাতে হবে 'বেসিক শিক্ষা অধিকারী'র ওয়েবপেজে। কেউ যদি কোনওদিন সেলফি তুলে না পাঠান তাহলে সেই শিক্ষকের একদিনের বেতন কাটা যাবে বলেও জানিয়েছে ওই নির্দেশিকা। স্কুলে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের এই নয়া উপস্থিতির রেকর্ড রাখার যে নিয়ম তার নামকরণ করা হয়েছে 'সেলফি অ্যাটেন্ডেন্স মিটার'। জানা গিয়েছে প্রায় ৭৫০০ শিক্ষিকাদের এই নিয়মের আওতায় নিয়ে আসা যাবে। 

১৮৮ ফুট উঁচু থেকে নায়াগ্রা জলপ্রপাতে পড়ে গেলেন এক ব্যক্তি! কী হল তারপর

ঠিক যে কারণে এই ৫ রাশির মানুষকে খুব সহজেই চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়

জানা গিয়েছে, 'বেসিক শিক্ষা অধিকারী'র ওয়েবপেজে একটি স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতির মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সেলফি যাচাই করেও দেখার ব্যবস্থা রয়েছে। 'বেসিক শিক্ষা অধিকারী'র এক আধিকারিকের তরফে জানানো হয়েছে এখনও পর্যন্ত হাজিরা না থাকার কারণে প্রায় ৭০০ শিক্ষকের বেতন কাটা হয়েছে। মূলত প্রাথমিক শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষকের গড় হাজিরা এবং প্রক্সি হাজিরা এড়াতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।