এক অভিনব পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রধানমন্ত্রীর মত হাই প্রফাইল ব্যক্তিত্বের  নিরাপত্তার কথা ভেবে একটি পৃথক টানেল তৈরির করার কথা ভাবা হয়েছে। এই টানেলের সাহায্যে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন থেকে সোজা পৌঁছে যাওয়া যাবে একেবারে সংসদ ভবনে। 

দেশে বেড়েছে সাংসদ সংখ্যা। সেই তুলনায় সংসদ ভবনে জায়গা অপ্রতুল হয়ে পড়েছে। তাই দেশের গণতন্ত্র রক্ষা করতেই সংসদ ভবনের সম্প্রসারণ জরুরি ছিল। তাই নতুন সংসদ ভবন তৈরি জরুরি হয়ে পড়েছিল। সেই মত ২০২৪ সালের মধ্যে নতুন সংসদ ভবন তৈরির কাজ সম্পূর্ণ হওয়ার কথা। সূত্রের খবর, নর্থ ব্লক ও সাউথ ব্লক নকুন করে তৈরি হওয়ার পরে সেখানে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন থেকে সংসদ ভবন পর্যন্ত একটি টানেল গঠন করা হবে। শুধুমাত্র প্রধানমন্ত্রীর যাতায়াতের জন্যই ব্যবহার করা হবে এই টানেল। সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজাতেই এই পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণের জন্য ট্রাস্ট, দিল্লি ভোটের আগেই ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

প্রধানমন্ত্রীর মত হাই প্রফাইল রাজনীতিবিদদের রাস্তা দিয়ে সফর করানো সব সময়ই অত্যন্ত ঝুঁকির। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর কনভয় যাওয়ার জন্য দীর্ঘক্ষণ আটকে থাকতে হয় ট্রাফিককে। ফলে হয়রানির স্বীকার হতে হয় আম জনতাকে। এই দুই সমস্যা থেকে রেহাই পেতেই নতুন এই পরিক্লপনা গ্রহণ করা হয়েছে। সেন্ট্রাল ভিস্তার মাস্টার প্ল্যানার বিমল প্যাটেল এই সংক্রান্ত একটি প্রেজেন্টেশনও দিয়েছেন। শোনা যাচ্ছে, নতুন পরিকল্পনায়  প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনকে সাউথ ব্লকের খুব কাছে নিয়ে আসারও পরিকল্পনা রয়েছে।

আরও পড়ুন: বিধায়ক হিসাবে কাজের নিরিখে এগিয়ে উপমুখ্যমন্ত্রী শিশোদিয়া, ৪ নম্বরে রয়েছেন কেজরিওয়াল

জানা যাচ্ছে, নর্থ ব্লক ও সাউথ ব্লকে দুটি জাতীয় সংগ্রহশালা তৈরি করা হবে। রাজপথে সরকারি কর্মচারীদের বসবাসের জন্য ১০টি নতুন বিল্ডিং তৈরি করা হবে। যেখানে থাকতে পারবেন ৫০ থেকে ৬০ হাজার সরকারি কর্মী। নতুন সংসদ ভবনে থাকছে অত্যাধুনিক ব্যবস্থা। নতুন সংসদ ভবনে জন প্রতিনিধিদের সঙ্গে মানুষের সরাসরি যোগাযোগের বন্দোবস্ত থাকছে। রাখা হচ্ছে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের ব্যবস্থাও।