ফ্রান্সের পাশাপাশি এই দেশেও করোনা সংক্রমণ মারাত্মক আকার নিয়েছে। কিন্তু তাতেই কোনও সমস্যা হবে না। নির্ধারিত সময়ই ভারতের হাতে আসবে রাফাল যুদ্ধ বিমান। মঙ্গলবার তেমনই জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। তিনি বলেছেন ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে তাঁর কথা হয়েছে। করোনা সংকট রাফাল হস্তান্তরে কোনও প্রভাব ফেলবে বলেও ফ্রান্সের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। 

ভারতের আকাশে চলতি বছর মে মাসেই রাফাল যুদ্ধ বিমান ওড়ার কথা ছিল। কিন্তু কিছু সমস্যার কারণে তা সম্ভব হয়নি।   আগামী জুলাই মাসের শেষেই ভারতের বিমান বাহিনীর হাতে আসছে রাফাল যুদ্ধ বিমান।  ভারতীয় বিমান বাহিনী আগামী ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারির মধ্যে পাকিস্তানের হুমকির মোকাবিলা করতে রাফাল যুদ্ধবিমানকে পুরোপুরে কাজে লাগাতে পারবে বলেও মনে করা হচ্ছে।  

ভার্চুয়াল না সেন্ট্রাল হল, কোথায় কীভাবে হবে সংসদের বর্ষাকালীন অধিবেশন তানিয়েই জল্পনা .

'মেড ইন ইন্ডিয়া' আর 'মেড ফর ওয়ার্ল্ড', আত্মনির্ভর ভারতের কথাই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ...

করোনা যুদ্ধের দিশারী কেরল, এবার আরও ৪ রাজ্যের সঙ্গে লকডাউন পরবর্তী আর্থিক পুনরুদ্ধারের নেতৃত্বে ..

ফ্রান্সের কাছ থেকে ৫৯,০০০ কোটি টাকায় ভারত ৩৬টি রাফাল যুদ্ধ বিমান কিনছে। ৩৬টি যুদ্ধ বিমানকে দুটে স্কোয়াডে ভাগ করা হবে। পাক হুমকির মোকাবিলা করতে একটি স্কোয়াড রাখা হবে আম্বালায়। চিনা হুমকির জবাব দিতে অন্যটি রাখা হবে পশ্চিমবঙ্গে। আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন এই যুদ্ধবিমানটি ক্ষেপণাস্ত্র দ্বারা সজ্জিত। যা অধিক শক্তি সম্পন্নও। 

এদিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়েছেন ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ফ্লোরেন্স পার্লির সঙ্গে টেলিফোন কথা হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা করোনাভারসার সংক্রমণের পরিস্থিতিতে আঞ্চলিক সুরক্ষা সহ পারস্পরিক সহযোগিতা নিয়েও আলোচনা করেছি। দুই দেশই একে অপরের পাশে থাকার ইঙ্গিত দিয়েছে বলেও তিনি জানিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়েছেন নির্ধারিত সময় রাফাল যুদ্ধ বিমানের হস্তান্তর হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ফ্রান্স।