ভোটবাজারে মানুষের মন পেতে রাফালকেই অস্ত্র করেছিলেন রাহুল গান্ধী। ভোট শেষ হতে দেখা যায় রাহুলের বক্তব্যকে সাধারণ মানুষ আমলই দেয়নি। আমেঠির মত জায়গায় ঐতিহাসিক হার সূচিত হয় রাহুলের। এমনকী পদত্যাগও করেন রাহুল।  যে ইস্যু নিয়ে রাহুলের যাবতীয় তর্ক সেই রাফাল বিমানই এবার বাজারে আসতে চলেছে।

সেপ্টেম্বরেই ভারতে আসছে রাফাল যুদ্ধ বিমান। শুক্রবার ভোপালের একটি অনুষ্ঠান থেকে এই কথা জানালেন ফরাসী রাষ্ট্রদূত আলহান্দ্রে জিগলার। রাফাল চুক্তি নিয়ে যাবতীয় কথাবার্তা শুরু হয় ২০০০ সালে। কথাবার্থা সদর্থকভাবে এগোতে থাকে ২০১০-১১ তে। স্থির হয় প্রতিটি বিমানের আনুমানিক দাম হবে ৫২৩-৫৬০ কোটি টাকা। রাফালের পাঠানো যন্ত্রাংশে বিমানগুলিকে উড়ানযোগ্য করে তুলবে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা হিন্দুস্থান অ্যারোনেটিকস লিমিটেড। নানা টালবাহানার মাঝখানেই ইউপিএ সরকারের পতন, মোদী সরকারের উঠে আসা।

মোদী সরকার ক্ষমতায় এলে হ্যাল-কে বাদ দেওয়া হচ্ছে এই চুক্তি থেকে। বিমানপিছু খরচও হাজার কোটি টাকা বেড়ে যায়। একেই তুরুপের তাস করেছিল বিরোধিরা। তবু শেষরক্ষা হয়নি। সেজেগুজে আসতে চলেছে রাফাল। এদিন আলেহান্দ্রে বলেন, আগামী দুই মাসের মধ্যে ভারতের হাতে প্রথম রাফাল বিমানটি তুলে দেওয়া হবে। আগামী দুই বছরের মধ্যে বাকি বিমানগুলিও চলে আসবে।
আরও পড়ুনঃ ১৪ হাজার ৬৩৫ কোটি টাকা কবে দেবেন, এবার অনিল অম্বানির ঘাড়ে নতুন ভূত
ফলপ্রকাশের আগের দিনই রাফালে অফিসে চোরের হানা! তদন্তে ফরাসি পুলিশ

প্রসঙ্গত রাফাল কাণ্ডে হ্যাল-কে বাদ দিয়ে প্রায় দেউলিয়া হয়ে যাওয়া যাওয়া অনিল অম্বানীর সংস্থাকে অফসেট বরাত পাইয়ে দেওয়া নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। অভিযোগ ছিল বিমানের যন্ত্রাংশকে জুড়ে বিমানটিকে উড়াণক্ষম করে তুলতে অনিল অম্বানিকে জমিও পাইয়ে দিয়েছে প্রশাসন। সেই অভিযোগের সত্য মিথ্যা যাচাইয়ের প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। এরই মাঝে রাফালের ভারতে আসার খবর। ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে না তো বিতর্ক?