Asianet News BanglaAsianet News Bangla

T-20 World Cup India Pak Match- ভারতীয় হয়ে পাকিস্তানের জয়ে উচ্ছাস প্রকাশের শাস্তি হল জেল

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে উত্তেজনা নতুন কিছু নয়।  তবে চলতি বছরে চেহেরাটা একটু আলাদা।  এবারে পাকিস্তানের কাছে একপ্রকার চূড়ান্ত হার হয়েছে ভারতের  যা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছে না দেশ। এই অবস্থায় দেশের বিরুদ্ধে কোনোরকম মন্তব্যে কঠোর পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে ভারতবর্ষের বিভিন্ন জায়গায় যার কবলে পড়ে জেল হল এক শিক্ষিকার। 
 

Rajasthani teacher was arrested after expressing joy for pakistan winning
Author
Kolkata, First Published Nov 3, 2021, 1:11 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

ভারত পাক ম্যাচের (India-Pakistan Match) উত্তেজনার পারদ এখন ও শিখরে। চলতি মরশুমের বিশ্বকাপে দীর্ঘকালীন রেকর্ড ভেঙেছে এই দুই দেশ।  পাকিস্তানের (Pakistan) কাছে চূড়ান্ত হার হয়েছে ভারতের (India)। শুধু হার নয় সেদিন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মাথা তুলে দাঁড়াতে পারে নি ভারতীয় ক্রিকেট বাহিনী। ফলত, একদিকে পাকিস্তানের উচ্ছাসে ভারতের জন্য মিলেছে শুধুই লজ্জা। যার রেশ এখনও চলছে দেশ জুড়ে। ২৪শে অক্টোবরের সন্ধ্যার পরাজয় ঘিরে এখন ও উত্তেজনা বর্তমান ভারতবর্ষের বিভিন্ন কোণে। এদিন দুই দেশের লক্ষ লক্ষ মানুষ তাকিয়েছিল ম্যাচের ফলাফলের দিকে। রাজস্থানের এক স্কুলের শিক্ষিকা নাফিসা আটারিও (Nafisa Attari) সেই উত্তেজনামূলক ম্যাচে টেলিভিশনের সামনে থেকে উঠতে পারেননি। তবে নাফিসা রাজস্থানের শিক্ষিকা হলেও আদতে ভারতের সমর্থক ছিলেন না।  তিনি ছিলেন পাকিস্তানের সমর্থক (Pakistan Supporter)। উল্লেখ্য, ভারতকে হারিয়ে পাকিস্তানের ঐতিহাসিক জয়ের পর কেবল পাকিস্তানবাসীই নয়, জয়ের উচ্ছাসে ভেসেছিল এদেশের পাক সমর্থকরাও। দিকে দিকে তারা 'ইসলামের জয়', 'আজাদির জয়' বলে স্লোগান তুলতে থাকেন। তবে নাফিসা এহেন মন্তব্য না করলে ও জয়ের উচ্ছাস প্রকাশ করেছিলেন তিনি ও। এদিন পাকিস্তানের জয়ের পর তিনি হোয়াটসঅ্যাপে স্টেটাস শেয়ার করে লেখেন 'আমরা জিতেছি' যা চোখে পড়ে যায় তারই স্কুলের অন্য আর এক সহকর্মী শিক্ষকের। এরপরই মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায় নাফিসার সেই পোস্ট। 

আরও পড়ুন- India- Pakistan Match- ভারত-পাক ম্যাচে পাকিস্তানের জয়ে উচ্ছাস প্রকাশে চাকরি গেল শিক্ষিকার

দু’ দিন পরে রাজস্থানের উদয়পুরের নিরজা মোদী স্কুলের (Nirja Modi School) এই শিক্ষিকার জায়গা হয়েছিল হাজতে। উদয়পুরের অম্বা মাতা থানার পুলিশ নাফিসাকে গ্রেফতার করে। অম্বা মাতা থানার পুলিশ আধিকারিক নরপত সিংহ জানান, নাফিসাকে (Nafisa Attari) ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩ বি ধারায় অভিযুক্ত করা হয়েছে। এরপর তাঁকে আদালতে তোলা হলে তাঁর জেল হয়। তবে শুধু জেল নয় এর আগে স্কুলের চাকরিও খোয়াতে হয় তাকে। 

আরও পড়ুন- India Pakistan Match- পাকিস্তানের জয়ে উচ্ছাস প্রকাশ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ নিল যোগী সরকার

উল্লেখ্য, 'অপরাধ’-এর জন্য ক্ষমা চেয়ে নেন নাফিসা। রাজস্থানের একটি টেলিভিশন চ্যানেলে তিনি বলেন, ‘‘সে দিন একজন আমার স্টেটাস দেখে হোয়াটসঅ্যাপেই (WhatsApp) জানতে চেয়েছিলেন, আমি পাকিস্তানকে সমর্থন করছি কি না। সঙ্গে কিছু হাসির ইমোজিও ছিল। মনে হয়েছিল হাল্কা মেজাজে মজা করে আমাকে এই প্রশ্ন করা হয়েছে। আমিও হাসতে হাসতেই বলেছিলাম ‘হ্যাঁ’। কিন্তু তার মানে তো এই নয় যে, আমি পাকিস্তানকে সমর্থন করি। আমি ভারতীয় (Indian)। ভারতকে ভালবাসি।’’ তবে আপাতত জামিন পেয়েছেন নাফিসা (Nafisa Attari) কিন্তু তার আইনি লড়াই এখনও জারি রয়েছে। এই প্রসঙ্গে, নাফিসার আইনজীবী রাজেশ সিংভি বলেছেন, ‘‘পুলিশ সম্পূর্ণ ভুল কাজ করেছে। কেউ ভুল করলে, বা কেউ কারও সঙ্গে একমত না হলে সেটাকে কখনোই দেশদ্রোহিতা বলা যায় না। এটা আমাদের সংবিধান বিরোধী। অন্যদিকে, হিন্দু সংগঠন বজরং দলের সদস্য রাজেন্দ্র পারমারও নাফিসার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘‘এই সব লোকেদের পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া উচিত। ভারতে থাকছ, রোজগার করছ, আর পাকিস্তানের জয় উদ্‌যাপন করছ! ওঁর শিক্ষা নেওয়া উচিত। উনি স্কুলে পড়ান। ছাত্রছাত্রীদের উনি কি শিক্ষা দেবেন?’’

আরও পড়ুন- T-20 Worldcup 2021- ভারতীয় ক্রিকেট দলের চূড়ান্ত ব্যর্থতা নিয়ে এবার মুখ খুললেন গাওস্কর- আজহারউদ্দিন


 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios