পূর্ব লাদাখ সীমান্তে চিনা সেনারা অগ্রাসন আর গালওয়ানে ভারতীয় সেনার সঙ্গে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ার পরই দেশজুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের দাবি ক্রমশই তীব্র হয়। সেই সময় চিনা অ্যাপ বাতিলেরও দাবি ওঠে। তার কয়েক দিন পরেই দেশের নিরাপত্তা ও জাতীয় সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে কেন্দ্রীয় সরকার ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। সেই তালিকায় ছিল জনপ্রিয় মোবাইল অ্যাপ টিকটক।


ছোট ভিডিও পোস্ট করার জন্য রীতিমত জনপ্রিয় টিকটক। ভারেত টিকটকের গ্রাহক সংখ্যা ছিল প্রায় ২০০ মিলিয়ন। কিন্তু টিকটক ব্যান হওয়ার পর অনেকেই হতাশ হয়ে পড়তে শুরু করে। কিন্তু মাত্র দুসপ্তাহের মধ্যেই বদলে যায় ছবিটা। টিকটকের স্থান গ্রহণ করতে এগিয়ে এসেছে ভারতীয় অ্যাপ রোপসো। 

সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছে এদেশে টিকটক নিষিদ্ধ হওয়ার পরই দ্রুত গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে রোপসোর। চলতি মাসের শেষের দিকে এই অ্যাপের গ্রাহক সংখ্যা ১০০ মিলিয়নে পৌঁছে যাবে বলেই আশা করা হচ্ছে সংস্থার পক্ষ থেকে। সংস্থার এক কর্তার কথায় ঘণ্টায় গ্রাহক বেড়েছে প্রায় ৫ লক্ষ। তিনি আরও জানিয়েছেন টিকটক নিষিদ্ধ হওয়ার আগে তাঁদের অ্যাপের গ্রাহক সংখ্যা ছিল ৫৫ মিলিয়ন। সংস্থার কর্তার কথায় ভারতী সংস্থার এই বিকাশ তাঁদের রীতিমত উৎসাহিত করেছে। 

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরাকারের নিষেধাজ্ঞার ফলে দেশীয় ডিজিটাল সংস্থাগুলি লড়াইয়ের অনেকটা সুযোগ পেয়েছে বলেও মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।   অনেক বিশেষজ্ঞ মনে করছেন আগামী দিনে আত্ম নির্ভর ভারতের প্রকৃত উদাহরণ হয়ে উঠতে পারে রোপসো। 

রোপসের প্রতিষ্ঠা নবীন তিওয়ারি বলেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চিন রাশিয়ার পর বিশ্বের চতুর্থ প্রযুক্তি কেন্দ্র হিসেবে ভারতের আত্মপ্রকাশ করার একটি দরজা খুলে গেছে। প্রায় এক দশক আগে ইনমোবি সংস্থার হাত ধরেই ভারতীয় বাজারে আত্মপ্রকাশ করে রোপসো। 

রোপসোর পক্ষ থেকে আরও জানান হয়েছে এই অ্যাপ খুব ভারতীয়দের সংস্কৃতি ও রসবোধের সঙ্গে পরিচিত। তাই খুব তাড়াতাড়ি জনপ্রিয়তা অর্জন করবে। এই অ্যাপে আপলোড করা ছোট ভিডিও গুলি ইতিমধ্যেই প্রবল জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। তবে সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছে টিকটকোর মত আর্থিকভাবে উন্নত নয় তারা। তাই কিছুটা হলেও তাদের সমস্যায় পড়তে হয়েছে। 

শুধু রোপসো নয়। চিনা অ্যাপ ব্যান হওয়ার পর কিছুটা হলেও আশার আলো দেখতে পাচ্ছে চিঙ্গারি অ্যাপও। তাঁদেরও গ্রাহক সংখ্যা বাড়ছে বলেও দাবি করেছেন সংস্থার প্রধান সুমিত ঘোষ। বর্তমানে তাঁদের গ্রাহক সংখ্যা ১৭. ৫ মিলিয়ন। এই দেশএ চিনা অ্যাপ ব্যান হওয়ার পর সাড়ে তিন লক্ষ গ্রাহক বেড়েছে বলেই দাবি করা হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে।  

প্রায় ৭২ ঘণ্টা পর মুখ খুললেন শচীন পাইলট, পদ হারিয়েও গান্ধীদের প্রতি আনুগত্য বজায় রেখে কী বললেন রাহুল...

এপ্রিল থেকে লাদাখে বেড়েছিল লালফৌজের তৎপরতা, গোয়েন্দা রিপোর্ট কি পৌঁছায়নি সরকারের ঘরে ...

গতমাস পর্যন্ত যেসব ব্যবহারকারী টিকটক থেকে আয় করেছিলেন বর্তমানে তাঁরাও অন্যান্য প্ল্যাটফর্ম খুঁজছে। তাঁদের কাছে চিঙ্গারি বা রোপসো অনেকটা জায়গা করে দিতে পারে বলেই মনে করেছেন। অন্যদিকে রোপসো নিজেই প্রভাবশালী বিপণন সংস্থা ও সেলিব্রিটিদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে বলে সূত্রের খবর। সংস্থার দাবি আগামী দিনে উদ্যোক্তাদের পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের জন্যই একটি দরজা খুলে যেতে পারে।