আশ্রয়হীনদের সাহায্য করতে প্রবল শীতে কম্বল দিয়েছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। কিন্তু মুখ্য়মন্ত্রী চলে যাওয়ার পরই উলট পুরাণ। ছাদহারা ওই মানুষদের থেকে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে কম্বল। খবর প্রকাশ্য়ে আসতেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

বিনা হেলমেট স্কুটিতে সওয়ার, প্রিয়ঙ্কাকে ছ' হাজার টাকা জরিমানা লখনউ পুলিশের

অতীতের পুনরাবৃত্তি। আগেও এই ধরনের খবর প্রকাশ্য়ে এসেছিল। সেবার খবরে আসে, কেবল লোক দেখানোর জন্যই জিনিস দিয়ে তা নিয়ে নিয়েছে মুখ্য়মন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের প্রশাসন। যোগী আদিত্যনাথ আসবেন দেখে হাসপাতালে নানা ব্য়বস্থা করা হলেও কিছুক্ষণের মধ্য়েই সব খুলে ফেলা হয়। এবার অবশ্য যোগী আদিত্যনাথের কম্বল নিয়ে নেওয়ার পিছনে বিরোধীদের হাত থাকার জল্পনাও থাকছে।

এনআরসি-সিএএ মুসলিমদের ক্ষতি করবে, প্রতিবাদে বিজেপি ছাড়ল পঞ্চাশের বেশি মুসলিম নেতাকর্মী

একটি দৈনিকে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, গত ২৭ ডিসেম্বর লক্ষ্মণ মেলার মাঠ ও কিং জর্জ হাসপাতালে গিয়েছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। সেখানেই আশ্রয়হীনদের হাতে কম্বল তুলে দেন তিনি। কিন্তু মুখ্য়মন্ত্রী চলে যাওয়ার পরই কিছু লোক এসে তা ফেরত দিতে বলে। প্রথমে ফেরত দিতে না চাইলেও পরে তা দিয়ে দেন আশ্রয়হীনরা। রাজ্য় বিজেপির ধারণা, যোগীর সরকারকে বদনাম করতেই এই ধরনের কাজ করা হয়েছে। কে বা কারা এর পিছনে রয়েছে তা জানতে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। থানায় এই নিয়ে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে, লখনউতে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধির আগমন ঘিরে সরগরম হয়েছে ইউপির রাজনীতি। কংগ্রেস অভিযোগ করেছে, সিএএ নিয়ে প্রতিবাদ করতে যাওয়ায় প্রিয়াঙ্কা গান্ধির পথ আটকেছে যোগীর পুলিশ। এমনকী ঘাড় ধরে নেত্রীর সঙ্গে দুর্ব্য়বহার করেছে পুলিশ। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইউপি পুলিশ। যে মহিলা পুলিশ কর্মীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করা হয়েছে সেই অর্চনা সিং জানিয়েছেন, তিনি কেবল নিজের কর্তব্য় করেছেন। ঘাড় ধরার মতো কোনও ঘটনাই ঘটেনি।