সোশ্যাল মিডিয়ায় দৌলতে অনেক মানুষই তাঁর হারিয়ে যাওয়া প্রিয়জনকে খুঁজে পেয়েছেন এমনও নজির রয়েছে। আর এবার সেই সোশ্যাল মিডিয়াই প্রাণ বাঁচাল এক সদ্যোজাতের। 

শ্রীনগরে জন্ম নেওয়া একটি দশ দিনের শিশুর জন্মগতভাবেই হার্টের সমস্যা ছিল। শুক্রবার শিশুটির এক কাকু, মুলতীব রায়না সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি টুইট করেন। সেই টুইটে তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রীনরেন্দ্র মোদীর পাশাপাশি একাধিক বিজেপি মন্ত্রীর পাশাপাশি জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশকেও ট্যাগ করেন। টুইটে তিনি লেখেন, একটি শিশুকে শ্রীনগর থেকে দিল্লিতে স্থানান্তরিত করার জন্য জরুরী সাহায্য প্রয়োজন। অনন্তনাগের কাজিগুন্দ থেকে দিল্লিতে কোনও অ্যাম্বুলেন্স যাওয়ার অনুমতি পাওয়া যাচ্ছে না বলেও জানান তিনি। জীবন-মরণ প্রশ্নে সাহায্য চেয়েই পোস্টটি করেছিলেন তিনি। 

আরও পড়ুন- 'দোস্তি' শেষ, ট্রেনের পর বন্ধ হওয়ার পথে লাহোর-দিল্লি বাস পরিষেবা

তাঁর এই পোস্টটি শ্রীনগরের ডেভেলপমেন্ট কমিশনার এবং জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শাহিদ চৌধারি- র নজরে আসে। তিনি রাজ্যপালের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করেন। সেই মোতাবেক শিশুটিকে রবিবার উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হবে দিল্লিতে। 

আরও পড়ুন- কাশ্মীর ইস্যুতে সংবিধান মেনেই হয়েছে সিদ্ধান্ত, মোদী সরকারের পাশে দাঁড়াল রাশিয়া

একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারের ভিত্তিতে সদ্যোজাত শিশুটির কাকু জানিয়েছেন। গত ৫ অগাস্ট তাঁরা ঠিক করেছিলেন যে, শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য দিল্লি নিয়ে যাওয়া হবে, কিন্তু তকন থেকেই সেখানে কার্ফু জারি হওয়ায় তাঁরা অ্যাম্বুলেন্স-এ করে দিল্লি যাওয়ার বন্দোবস্ত করে উঠতে পারেননি। এই ঘটনায় স্বভাবতই স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছে শিশুটির পরিবার।