সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওকে ঘিরে শুরু হয়েছে বিস্তর কাটা-ছেঁড়া। কারণ ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, একটি স্ট্রেচারে শুয়ে রয়েছে এক ব্যক্তি এবং তার পা টিপে দিচ্ছেন খাঁকি উর্দিধারী এক পুলিশকর্মী। 

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের শামলীতে। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, একটি মেডিকেল ক্যাম্পে একজন কানওয়ার যাত্রীর পদসেবা করছেন শামলীর পুলিশ সুপার অজয় কুমার। তবে এখানেই শেষ নয়, কানওয়ার যাত্রীদের খাদ্য ও পানীয়ও প্রদান করেছেন। কিন্তু পুলিশকে এই ভুমিকায় দেখে উঠছে প্রশ্ন। অনেকেরই দাবি একজন পুলিশ হয়ে তিনি কীকরে একজন ব্যক্তির পা টিপে দেওয়ার মতো কাজ করতে পারেন। 

কিন্তু যাবতীয় কটাক্ষকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েছেন শামলীর পুলিশ সুপার অজয় কুমার। তিনি বলেছেন তাঁর মতো সকল পুলিশকর্মীই আহত তীর্থযাত্রীদের পর্যাপ্ত সুরক্ষা দেওয়ার লক্ষ্যে সর্বদা প্রস্তুত। সেইসঙ্গে পর্যাপ্ত অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবারও ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাতে আহতদের শীঘ্রই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যায়। 

 

কানওয়ার যাত্রীর পা টেপার প্রসঙ্গে পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, মানুষের ধর্মই অন্য মানুষকে সাহায্য় করা। তাঁর মূল অভিপ্রায় হল অন্য মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়া। শুধু তাই নয় তিনি আরও বলেন যে, এই ভিডিওর মারফৎ তিনি তাঁর সহকর্মী পুলিশদের উদ্দেশে একটা বার্তাই দিতে চান যে, শুধুমাত্র নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করাই যথেষ্ট নয়, পরিষেবা প্রদান করাও সমান গুরুত্বপূর্ণ।