চলতি মাসের ৫ তারিখে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয় জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী ৩৭০ ধারা। এর পাশাপাশি সংবিধানের ৩৫এ ধারাও তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর উপত্যকার পরিস্থিতি কেটে গিয়েছে বিভিন্ন চাপানউতোরের মধ্যে দিয়ে। 

জম্মু ও কাশ্মীর-কে আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসাবে ঘোষণা করার পর, এই প্রথম কোনও সন্ত্রাসমুলক অপরাধের ঘটনা ঘটল উপত্যকায়। সূত্রের খবর, পুলওয়ামা জেলার জঙ্গলের কাছে থেকে সোমবার দুজন গুজ্জর সম্প্রদায়ের মানুষকে অপহরণ করা হয়েছে বলে খবর। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, এই ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর সদস্যরাই। 

শেষ হল এক অধ্যায়, প্রয়াত দেশের প্রথম মহিলা ডিজিপি

ভারতকে বিপাকে ফেলার চেষ্টা, অতিরিক্ত জল ছেড়ে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি করল পাকিস্তান

পুলিশের এক মুখপাত্র সূত্রে খবর, জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলার আবদুল কাদের কোহলি নামে এক ব্যক্তি এবং শ্রীনগরের খোনমোহ এলাকার মনজুর আহমেদ নামে আর একজনকে কিছু অজ্ঞাত পরিচয় বন্দুকধারী অপহরণ করে নিয়ে যায় বলে খবর। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ। একটি  সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম-কে দেওয়া সাক্ষাতকারে জম্মু ও কাশ্মীরের ডিজিপি দিলবাগ সিং জানান যে, আবদুল কাদের কোহলির গুলিবিদ্ধ দেহ এদিন উদ্ধার করা হয়েছে।

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়-কে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন, এবার দেশের বৃহত্তম সুড়ঙ্গ তার নামেই নামাঙ্কিত হওয়ার পথে 

তিনি আরও জানিয়েছেন, গুজ্জর সম্প্রদায়ের এই দুই যুবককে অপহরণ করে নিয়ে যায় জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠী। পরে আর এক নিহত যুবকের দেহও উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি। পাশাপাশি ওই জঙ্গি গোষ্ঠীকে সর্বতভাবে খতম করার যাবতীয় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলেও জানান জম্মু ও কাশ্মীরের ডিজিপি। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার এবং জম্মু ও কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করার পরে এই প্রথম কোনও জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটল কাশ্মীরে।