জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর ভারতের সঙ্গে একাধিক কূটনৈতিক সম্পর্ক ছেদ যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছিল পাকিস্তান। কোনও ভাবেই কোনও কিছু করে উঠতে না পারায় এবার বন্যা ইচ্ছে করেই বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা করছে পাকিস্তান। বন্যার হুমকির মুখে পঞ্জাবের সীমান্তবর্তী জেলা ফিরোজপুরের কয়েকটি গ্রাম।

উপত্যকায় নিরাপত্তা বাহিনীর গাড়ি ভেবে পাথর ছুঁড়ল বিক্ষোভকারী, ঘটনায় নিহত ট্রাক চালক

ভারত-পাক সীমান্তে পঞ্জাব সীমান্তে শতদ্রু নদীর জল ছাড়ার ফলে জলস্তর অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছে বলে খবর, পঞ্জাব সীমান্তে ফিরোজেপুর গ্রামে সৃষ্টি হয়েছে বন্যা পরিস্থিতি। রবিবার ফিরোজেপুর জেলা প্রশাসনের তরফে জারি করা হয়েছে সর্বোচ্চ সতর্কতা। ইতিমধ্যেই জাতীয় মোকাবিলা বাহিনীকে সতরেক করে দেওয়া হয়েছে। তৈরি থাকতে বলা হয়েছে সেনা বাহিনীকেও। কারণ ইতিমধ্যেই একাধিক গ্রামে বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে বলে খবর। 

জি-৭ সম্মেলনে নরেন্দ্র মোদী, উঠে আসতে পারে কাশ্মীর প্রসঙ্গ

পঞ্জাব সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, পাকিস্তানের তরফে একসঙ্গে বিপুল পরিমাণ জল ছাড়ার কারণে তেন্ডিওয়ালা গ্রামের কাছে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বাঁধ। সেচ ও জল নিস্কাশন দফতরের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই বাঁধটির ক্ষতিগ্রস্ত অংশ সারাইয়ের ব্য়বস্থা করা হচ্ছে।

পাকিস্তানের হাঁড়ির হাল, সরকারি মিটিং-এ চা-বিস্কুটও বন্ধ

তবে এখানেই থেমে থাকেনি পাকিস্তান। শনিবার রাতে চামড়ার কারখানার দূষিত জলও শতুদ্র নদীতে ফেলেছে পাকিস্তান, এমনটাই অভিযোগ। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, শতদ্রু নদীর জলস্তর নেমে গেলেও নদীর জলের সঙ্গে দূষিত হয়ে যাওয়ার কারণে সেখানকার স্থানীয় মানুষদের স্বাস্থ্যের অবণতি হতে পারে, এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করেছে পঞ্জাব সরকার।