মহারাষ্ট্রের থানে জেলার ভিওয়ান্ডির, নারপোলিতে ৩১ বছর বয়সের এক যুবকের গলার নলি কাটা অবস্থায় মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছে। মৃত ওই যুবকের নাম তুলসীরাম চাওয়ান। কয়েক বছর আগেই তুলসীরামের বাবা মায়ের মৃত্যু হয়েছে। বাবা-মা গত হওয়ার পর থেকে বাড়িতে একাই থাকতেন তুলসীরাম।

আরও পড়ুন- 'আপনি আমার কাছে ঈশ্বর', গুণমুগ্ধের কথা শুনে ৫৬ ইঞ্চির ছাতির চোখেও এল জল

আরও পড়ুন- 'ব্যান' নিয়ে বিবৃতি এশিয়ানেট নিউজের, দেশ ও দশের কাছে সত্যকে পৌঁছে দেওয়ার নয়া অঙ্গিকার

বাবা-মায়ের মৃত্যুর পর থেকে তুলসীরাম এর এক আত্মীয় সম্পর্কে যিনি তাঁর ভাই হন মাঝে মাঝে এসে তুলসীরাম এর সঙ্গে থাকতেন। তবে ২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তে সেই ভাইয়েরও মৃত্যু হয়। এর আগে অবধি তার ভাই মাঝে মাঝেই আসতেন তুলসীরাম এর বাড়িতে। এমনটাই পুলিশ আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন তুলসীরাম এর প্রতিবেশী এক মহিলার থেকে। 

আরও পড়ুন- করোনা আতঙ্কের মধ্যেই মথুরা মেতেছে উৎসবে, গোকুলে পালিত হচ্ছে 'ছাদি হোলি', দেখুন ভিডিও

প্রতিবেশী ওই মহিলা পুলিশ আধিকারিক-কে আরও জানিয়েছেন, তুলসীরাম চাওয়ান তার মৃত্যুর আগে মাঝে মধ্যেই রাতে তাঁর মৃত ভাইয়ের উপস্থিতি খুব ভালো করেই অনুভব করতে পারছেন। এমনকী ঘুমের মধ্যে তার মৃত ভাই তাঁকে বারবার আঘাত করার চেষ্টা করছেন বলে প্রতিবেশী ওই মহিলা পুলিশকে জানিয়েছেন। তুলসীরামকে দেখে ভীত মনে হওয়ায় ওই মহিলা তাঁর বাড়িতেই রাতে থেকে যাওয়ার পরামর্শ দেন। তবে তুলসীরাম না থেকে বাড়ি ফিরে যান, পরদিন ভোর সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ তুলসীরামের গলার নলি কাটা দেহ উদ্ধার করেন নারপোলি থানার পুলিশ। অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে এই মৃত্যু কান্ডের অভিযোগ দায়ের করা হয়। এই মৃত্যু রহস্যের তদন্ত এখনও চলছে আসল ঘটনা জানার চেষ্টা করছেন ভারপ্রাপ্ত আধিকারিকেরা।