Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Saayoni Ghosh: আন্দোলন থেকে সরছেন না, ত্রিপুরায় জামিন পেয়ে ঘোষণা সায়নী ঘোষের

রবিবারে ঘণ্টা তিনেক জিজ্ঞাসাবাদের পরে গ্রেফতার করা হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী সায়নী ঘোষকে। সোমবা বিকেল ৫টা নাগাদ তাঁকে আগরতলা আদালতে পেশ করা হয়।

TMC leader Saayoni Ghosh was granted bail from Tripura court bsm
Author
Kolkata, First Published Nov 22, 2021, 9:39 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

অবশেষে জামিন পেলেন তৃণমূল কংগ্রেসের যুবনেত্রী সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh)।  পশ্চিম ত্রিপুরার (Tripura) চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছ থেকেই তিনি জামিন পান। তবে লড়াই থেকে যে তিনি পিছিয়ে আসছেন না  জামিনে মুক্তির পরেও জানিয়েছেন তৃণমূল  কংগ্রেস (TMC) নেত্রী। জামিন পাওয়ার কিছুক্ষণ পরেই সায়নী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন। সেখানে তিনি বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে তোলা সমস্ত অভিযোগই ভিত্তিহীন প্রমাণিত হয়েছে। তাঁরা লড়াই চালিয়ে যাবেন। তিনি আরও বলেন, 'এভাবে আমাদের দমানো যাবে না। '

রবিবারে ঘণ্টা তিনেক জিজ্ঞাসাবাদের পরে গ্রেফতার করা হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী সায়নী ঘোষকে। সোমবা বিকেল ৫টা নাগাদ তাঁকে আগরতলা আদালতে পেশ করা হয়। সায়নীকে আরও জেরার জন্য দুদিনের হেফাজতে চেয়েছিল ত্রিপুরার পুলিশ। কিন্তু শুনানির পর সেই পুলিশের আবেদন খারিজ করে দিয়েছে আদালত। সায়নীকে জামিনে মুক্তি দেয় আদালত। মুক্তির পরেই সায়নী বলেন, 'আদালতের ওপর বিশ্বাস আর আস্থা ছিল। এটা সত্যের জয়।' তিনি আরও বলেন যে পথে লড়াই করছেন সেই পথেই তিনি লড়াই চালিয়ে যাবেন। মিথ্যা মামলা করে তাঁকে দমানো যাবে না। 

Afghan Girl: বিয়ের নামে ২০ দিনের শিশুকন্যা বিক্রি, বাল্যবিবাহের ভয়ঙ্কর ছবি আফগানিস্তানে

Mamata Banerjee On BSF: 'গায়ের জোরে এলাকা দখল করতে দেব না', দিল্লি যাওয়ার আগে তোপ মমতার

Farmer Protest: প্রধানমন্ত্রী দুঃখ প্রকাশ না করলেও পারতেন, মহাপঞ্চায়েতে বললেন কৃষক নেতা

সায়নীর অভিযোগ, তাঁকে শারীরিকভাবেও হেনস্থা করা হয়েছে। থানার মধ্যেই যেভাবে হামলা চালান হয়েছে তাতে তিনি রীতিমত ভয় পেয়ে গিয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন। তিনি আরও বলেন থানায় হামলা পরই তাঁকে অন্য একটি থানায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। রাতেই সায়নী তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেছেন বলেও জানিয়েছেন। 

সায়নী আরও জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে যেভাবে সাহায্য করেছেন তাও আগামী দিনে তিনি মনে রাখবেন। ত্রিপুরার কর্মীদের কথাও তিনি উত্থাপন করেন সাংবাদিকদের সামনে। তিনি বলেন ত্রিপুরার কর্মীরা সর্বদাই তাঁর পাশে ছিল। তাঁর জন্য লড়াই করেছিল। ত্রিপুরায় তৃণমূল এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বে না বলেও জানিয়েছেন সায়নী ঘোষ। 

রবিবারই সায়নী ঘোষকে গ্রেফতার করেছিল ত্রিপুরা পুলিশ। মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সভার সামনে দিয়ে তীব্র গতিতে গাড়ি চালিয়ে যাওয়ার সময় তাঁর গাড়ি ধাক্কা মানে এক পথচারীকে। এই অভিযোগে সায়নীর বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ তোলা হয়েছিল। এছড়াও বিপ্লব দেব সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য করার অভিযোগও তুলেছিল পুলিশ। সায়নীকে থানায় জিজ্ঞাবাদের জন্য ডাকার পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল ত্রিপুরার রাজনীতি। যার আঁচ পড়েছিল এই রাজ্য ও দিল্লিতেও। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios