রবিবার পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদার সঙ্গে শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে দিল্লির নিগমবোধ ঘাটে। ইতিমধ্যেই অরুণ জেটলির মরদেহ নিয়ে আসে হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির সদর দফতরে। সেখানে তাঁকে সম্মান জানাতে উপস্থিত হয়েছেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ এবং বিজেপির ওয়ার্কিং প্রেসিডেন্ট জে পি নাড্ডা।  

 

ইতিমধ্যেই দিল্লির বিজেপির সদর দফতরে এসে উপস্থিত হয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হর্ষ বর্ধন, পীযুষ গয়াল, ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস। তাঁরা সকলেই শেষ সম্মান জ্ঞাপন করছেন প্রয়াত প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিকে।

 

দীর্ঘ রোগ ভোগের পর শনিবার সকালে দিল্লির এইমস-এ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন  বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা তথা প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। শনিবারই তাঁর মরদেহ নিয়ে আসা হয় তাঁর কৈলাশ কলোনির বাসভবনে। রবিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত তাঁর মরদেহ তাঁর বাসভবনেই ছিল। এদিন তাঁর বাসভবনে তাঁর বাড়িতে তাঁকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আসেন, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাউডু, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, কংগ্রেসের অন্তর্বর্তীকালীন সভাপতি সনিয়া গান্ধী, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ, ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ক, বর্ষীয়ান নেতা লালকৃষ্ণ আদবাণী, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং প্রমুখ।

আরও পড়ুন- অরুণ জেটলির স্ত্রীকে চিঠি লিখে সমবেদনা জানালেন সনিয়া, ভাগ করে নিলেন যন্ত্রণা

আরও পড়ুন- অস্ত গেলেন অরুণ, পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে আজ

আরও পড়ুন- এখনও কাটেনি সুষমা স্বরাজের মৃত্যু শোক, তাঁর প্রয়াণে কী প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন জেটলি

আরও পড়ুন- চলে গেলেন জেটলি, রেখে গেলেন ১১ মাইলস্টোন

এরপর আজ সকালে তাঁর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছে দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে।  সেখানে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে একে একে আসছেন বিজেপির বিভিন্ন সারির নেতারা। বর্ষীয়ান বিচক্ষণ, দূরদর্শীতাবোধ সম্পন্ন, এই রাজনীতিবিদের প্রয়াণে শোকস্তব্ধ রাজনীতি মহল। রবিবার দুপুরে নিগমবোধ ঘাটে পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদার সঙ্গে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন  করা হবে।