দিল্লির দূষণ ক্রমেই বাড়ছে। বায়ুদূষণের পাশাপাশি দূষণের প্রভাব পড়ছে প্রাত্যহিক জীবনেও।  দুদিন আগেই ছট পুজো ছিল। এই সময় পুণ্যার্থীরা সূর্যের উপাসনা করেন। নদীতে নেমেই এই সূর্যোদয়ের আগে ও সূর্যাস্তের সময় উপাসনা করা হয়। সম্প্রতি এই ছট পুজো উপলক্ষ্যে বেশ কিছু ভিডিও ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। ফেনা ফেনা যুমনা নদীর জলে সূর্যের উপাসনা করছেন স্থানীয়রা। হঠাৎ করে দেখলে মনে হতেই পারে,  যুমনা নদীর ওপর বরফ ভাসছে। কিন্তু  নদীর জলে এই ফেনা ফেনা মারাত্মক দূষণের  ফলাফল। নদীর জলের টক্সিকের পরিমাণ ব্যাপক পরিমাণে বেড়ে যাওয়ার ফলে এই ধরনের ফেনার সৃষ্টি হয়ে থাকে। সম্প্রতি, ফেনার মধ্যে দাঁড়িয়ে পুণ্যার্থীদের উপাসনার ছবি ক্রমেই ভাইরাল হয়ে উঠেছে। 

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠতে শুরু করেছে। কেউ কেউ ছবির ক্যাপশনে লিখছেন, স্বর্গ না নরক। কেউ কেউ আবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবির প্রেক্ষিতে লিখেছেন,  দূষণের ফলে এত কিছু ঘটছে, কবে আমরা সজাদ হবো। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ছবি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ মহল। যেভাবে দূষণের হার বেড়ে চলেছে, খুব শীঘ্রই বড় ধরনের বিপদের মুখে পড়তে চলেছে  মানুষ। 

প্রসঙ্গত, বায়ু দূষণের দিক থেকে দিল্লির পরিস্থিতি ক্রমেই খারাপ হতে চলেছে। বুধবার সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণা মিশ্র জানিয়েছেন, ' দূষণের জেরে মানুষ ক্রমাগত মৃত্যুর দিকে এগিয়ে চলেছে। আমরা কি কখনও এগুলো মেনে নিতে পারি। আমরা কি দেশকে ১০০ বছর পিছিয়ে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিতে পারি।  দিল্লির এই দূষণের জন্য  আমরা সরকারকেই দায়ী করব। সরকার দূষণ রোধ করতে,  দিল্লির জনগণকে সুস্থ স্বাভাবিক পরিবেশ দিতে কেন সচেষ্ট হচ্ছে না।