দেশজুডে় করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় লকডাউনের মেয়াদ বাড়াল কেন্দ্রীয় সরকার। পয়লা বৈশাখের দিন নিজেই সেকথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নেরন্দ্র মোদী। আর এই ঘোষণা আসতেই ৩ মে পর্যন্ত যাত্রীবাহী রেল পরিষেবা বন্ধ রাখার ঘোষণা করে দিল রেলমন্ত্রক। প্যাসেঞ্জার ট্রেন, মেল এক্সপ্রেস, শহরতলি থেকে মেট্রো,  সমস্ত যাত্রী পরিষেবাই  বন্ধ থাকবে এই সময়ে। তবে এক্ষেত্রে পণ্যবাহী ট্রেন যেমন চলছিল, ঠিক তেমনই চলবে।

 
ট্রেন পরিষেবা বাতিল থাকার কারণে যাত্রীদের টাকা ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্তও নিয়েছে রেল মন্ত্রক। ১৫ এপ্রিল থেকে ট্রেন বুকিং যাঁরা করেছেন তাঁদের অ্যাকাউন্টে টাকা ফেরত যাবে বলে  জানিয়েছেন  রেল কর্তৃপক্ষ।

 
ত ২৪শে মার্চ দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউনের ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মঙ্গলবার রাত ১২টায় এই লকডাউন সমাপ্ত হতওয়ার কথা ছিল। সেইমত  ১৫ এপ্রিল থেকে প্রায় যাত্রীবাহী ট্রেন চালানোর সমস্ত প্রস্তুতি সেরে ফেলেছিল রেল। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল। এমনকি, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্যে ট্রেনের মিডল বার্থ ফাঁকা রাখারও সিদ্ধান্ত নিয়ে নেওয়া হয়। তবে প্রধানমন্ত্রী নতুন করে লকডাউনের সময় বাড়াতেই ট্রেন পরিষেবাবন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় ভারতীয় রেল ।


ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে, জেনে নিন এখনও করোনা মুক্ত দেশের কোন কোন অঞ্চল
করোনা যুদ্ধে অস্ত্র হোক গামছা, দেশবাসীকে পাঠ পড়ালেন খোদ প্রধানমন্ত্রী
এক মাসের মধ্যে প্রাণ গেল ১০ হাজারের, গোড়ায় ঢিলেমির মাসুল গুনছে অহঙ্কারী নিউ ইয়র্ক

শুধু যাত্রীবাহী ট্রেন নয়, যাত্রীবাহী বিমান পরিষেবাও দেশে চলা লকডাউন অবধি বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। এদিন প্রধানমন্ত্রী লকডাউনের সময়সীমা বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করার পরেই ডিজিসিএ-র তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, সমস্ত অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা ৩ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।