শুক্রবার ত্রিপুরা হাইকোর্টের তরফে নেওয়া হয়েছে এক যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। রাজ্যের সমস্ত মন্দিরে ধর্মীয় কারণে পশু বা পাখির বলি নিষিদ্ধ করা হচ্ছে বলে জানিয়ে দিল ত্রিপুরা হাইকোর্ট। এদিন প্রধান বিচারপতি সঞ্জয় করল এবং বিচারপকি অরিন্দম লোধের একটি ডিভিশন বেঞ্চ একটি জনস্বার্থ মামলার শুনানির শেষে এই রায় প্রদান করেন। 

হাইকোর্টের রায়ে বলা হয়েছে, ত্রিপুরা রাজ্যের কোনও মন্দির বা সীমানার মধ্যে কোনও ব্যাক্তিকে কোনও পশু বা পাখির বলি দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে না। আর এই নির্দেশ যাতে যথাযথভাবে কার্যকর করা যায়, সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে রাজ্যের সমস্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

আরও পড়ুন- আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সমাদৃত স্বচ্ছ ভারত অভিযান, 'গ্লোবাল গোলকিপার' পুরস্কার পেলেন নমো

আরও পড়ুন- বিরাট দুর্ঘটনার কবলে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কনভয়, ঘটনাস্থলে মৃত ২, ৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

আরও পড়ুন- চন্দ্রপৃষ্ঠে হার্ড ল্যান্ডিং হয়েছে বিক্রমের, টুইট করে ল্যান্ডারের অবতরণের স্থান প্রকাশ নাসার

এযাবৎ সবচেয়ে বেশি পশু বলি দেওয়া হয় ত্রিপুরা রাজ্যের দুটি প্রধান মন্দির- দেবী ত্রিপুরেশ্বরী মন্দির এবং  চতুরদাস দেবতা মন্দির। হাইকোর্টের এই রায় ঘোষণার পর থেকেই এই দুটি মন্দিরে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ডিভিশন বেঞ্চের তরফে আরও আদেশ দেওয়া হয়েছে, প্রতি মাসে সেইসব সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজের সফট কপি মুখ্যসচিবকে সংগ্রহ করতে হবে।