Asianet News Bangla

'শুভেন্দুর সঙ্গে বৈঠক'এর জেরে বিপাকে সলিসিটর জেনারেল, মোদীকে চিঠি দিল তৃণমূল

তুষার মেহতা-কে ভারতের সলিসিটার জেনারেলের পদ থেকে অপসারণ করা হোক

প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিল তৃণমূল কংগ্রেস

শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন তিনি, এমনটাই অভিযোগ

বিষয়টি অস্বীকার করেছেন সলিসিটার জেনারেল

 

Tushar Mehta Denies meeting BJP's Suvendu Adhikari, after TMC demands his removal as Solicitor General ALB
Author
Kolkata, First Published Jul 2, 2021, 4:10 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন তিনি। যার তাঁর মতো পদে থাকা ব্যক্তির জন্য স্বার্থের সংঘাত। তাই আইনজীবী তুষার মেহতা-কে ভারতের সলিসিটার জেনারেলের পদ থেকে অপসারণ করার অনুরোধ জানিয়ে, শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিল তৃণমূল কংগ্রেস। তবে তুষার মেহতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠকে বিষয়টি অস্বীকার করেছেন এবং বলেছেন না জানিয়েই তাঁর বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন শুভেন্দু। এই নিয়ে নতুন করে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাতের পরিবেশ তৈরি হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে লেখা চিঠিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল বাংলার বিরোধী দলনেতা বিজেপির শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে ভারতের সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার বৈঠককে 'স্বার্থের সংঘাত' (conflict of interest) বলে অভিহিত করেছে। তারা দাবি জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের শীর্ষ আইনজীবীর পদ থেকে তাঁকে 'অবিলম্বে' অপসারণ করা হোক। চিঠিতে তৃণমূল কংগ্রেস, শুভেন্দু অধিকারীকে 'বিভিন্ন ফৌজদারি মামলার আসামী' বলে উল্লেখ করেছে।

এদিকে সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে 'দেখা করার কোনও প্রশ্নই আসে না' বলে দাবি করেছেন তুষার মেহতা। তবে শুভেন্দু অধিকারী যে বৃহস্পতিবার দুপুর তিনটে নাগাদ তাঁর বাসভবন তথা কার্যালয়ে এসেছিলেন, সেই কথা মেনে নিয়েছেন ভারতে সলিসিটর জেনারেল। তবে, তাঁর সঙ্গে শুভেন্দুর শেষ পর্যন্ত দেখা হয়নি এবং এক কাপ চা খেয়েই সেখান থেকে বিদায় নিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দলনেতা, এমনটাই সুষার মেহতার দাবি।

ভারতের সলিসিটর জেনারেল বলেছে্ন, শুভেন্দু যখন এসেছিলেন, সেই সময় তিনি তাঁর কক্ষে এক পূর্ব নির্ধারিত বৈঠকে ব্যস্ত ছিলেন। তাঁর কর্মচারীরা শুভেন্দুকে তাঁর কার্যালয়ের ওয়েটিং রুমে বসান এবং তাঁকে এক কাপ চা দিয়েছিলেন। বৈঠকের পর আবার তুষার মেহতা জানতে পেরেছিলেন তাঁর ব্যক্তিগত সচিব আসবেন কোনও জরুরি কাজ নিয়ে। তাই শুভেন্দু অধিকারির সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না বলে কর্মীদের মাধ্যমে জানিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। এরপর শুভেন্দু অধিকারী আর দেখা করার জন্য জোরাজোরি না করে চলে যান, এমনটাই দাবি করেছেন সলিসিটর জেনারেল। এবার এই ঘটটনার জল কতদূর গড়ায়, সেটাই দেখার।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios