Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Covid 19 Vaccine: 'টিকাতে দ্বিধাই সবথেকে বড় ঝুঁকি', কোভিড ১৯ নিয়ে উদ্বেগ সেরাম কর্তার

সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে আদার পুনাওয়ালা বলেছেন, মহামারি কাটিয়ে উঠতে টিকা নিয়ে দ্বিধাগ্রস্ত হওয়াই এখন সব থেকে বড় হুমকি। প্রাস্ত বয়স্কদের উচিৎ যতদ্রুত সম্ভব টিকা নেওয়া।

Vaccine hesitancy greatest threat in overcoming covid 19 says sii ceo adar poonawalla bsm
Author
Kolkata, First Published Nov 18, 2021, 6:41 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

টিকা (Vaccine) নিতে এখনও মানুষের মধ্যে দ্বিধা রয়েছে। যেদিন দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে কোভিড ১৯ (Covid 19) টিকার ১১৪ কোটির বেশি ডোজ দেওয়া হয়েছে ঠিক সেই দিনই এমনই দাবি করেছেন বিশ্বে গুরুত্বপূর্ণ টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার (SII) সিইও আদার পুনাওয়ালা (Adar Poonawalla)। তাঁর কথায় মাহামারি কাটিয়ে উঠতে এই সময় সবথেকে বড় হুমকি হল টিকা নিতে দ্বিধাগ্রস্ত (Vaccine hesitancy) হওয়া। মহামারির বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয় করার জন্য তিনি প্রাপ্ত বয়স্কদের দ্রুততার সঙ্গে টিকা নেওয়ার অনুরোধও জানিয়েছে। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে আদার পুনাওয়ালা বলেছেন, মহামারি কাটিয়ে উঠতে টিকা নিয়ে দ্বিধাগ্রস্ত হওয়াই এখন সব থেকে বড় হুমকি। প্রাস্ত বয়স্কদের উচিৎ যতদ্রুত সম্ভব টিকা নেওয়া। রাজ্যগুলির কাছে কোভিশিল্ডের ২০০ মিলিয়ন ডোজ রয়েছে। তিনি আরও বলেছেন টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি দেশের মানুষের কাছে টিকা পৌঁছে দেওয়ার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করছে। পাশাপাশি দেশের প্রাপ্ত বয়স্কদের দ্রুত টিকা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন আদার পুনাওয়ালা। 

Jammu Kashmir: ভূস্বর্গে দুই ব্যবসায়ীর মৃত্যুর প্রতিবাদ, গৃহবন্দি করা হল মেহবুবা মুফতিকে

Kulbhushan Jadhav: বিল পাশ পাক সংসদে, মৃত্যুদণ্ডের বিরুদ্ধে আবেদন করতে পারবেন কুলভূষণ যাদব

অ্যাস্ট্রোজেনেকা ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি কোভিশিল্ড ভারতের গুরুত্ব পূর্ণ একটি টিকা। এই টিকা প্রস্তুত করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। এছাড়াও রয়েছে ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন। পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকা সত্ত্বেও এখনও পর্যন্ত ভারতের প্রাপ্ত বয়স্ক জনসংখ্যার মাত্র ৪০ শতাংশই সম্পূর্ণরূপে টিকা পেয়েছে। বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছেন এই মুহূর্ত সংক্রমণ হ্রাস পেয়েছে। আর সেই কারণেই টিকা নেওয়ার প্রবণতাও হ্রাস পেয়েছে। কোউইন ড্যাশবোর্ড অনুসারে দেশের প্রায় ৯৩ কোটি প্রাপ্ত হয়স্তগের মধ্যে ৩৮ কোটিরও বেশি মানুষকে করোনা টিকার দুটি ডোজ দেওয়া হয়েছে। 

করোনাভাইরাসের মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য টিকা অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। জানুয়ারি মাস থেকেই এই দেশে টিকাকর্মসূচি শুরু হয়েছে। বর্তমানে প্রাপ্ত বয়স্কদের টিকা দেওযার  কাজ চলছে। খুব তাড়াতাড়ি শিশুদেরও করোনা টিকা দেওয়া হয়েছে। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই কথাবার্তা চলছে। 

 ১০০ কোটি টিকার ডোজ দেওযার  মাইলফলক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করেছিলেন আদার পুনেওয়ালাসহ টিকা প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলির কর্মকর্তারা। সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার কর্তা আদার পুনাওয়ালা সরকারের প্রবর্তিত নিয়ন্ত্রণ সংস্থারের প্রশংসা করেছেন। ডক্টর কৃষ্ণা এলা কোভ্যাক্সিন তৈরি ও উন্নয়নের প্রধানমন্ত্রীর সমর্থন ও অনুপ্ররণার প্রশংসা করেছেন। পঙ্কজ প্যাটেল রাষ্ট্র সংঘে জিএনএ ভিক্তিক ভ্যাকসিন নিয়ে কথা বলার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। মহিলা দাতলা বলেন প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টার জন্যই ভারত দ্রুত টিকা কর্মসূচি রূপায়ন করতে পেরেছে। সঞ্জয় সিং টিকা উন্নয়নের গুরুত্ব দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করেছেন। সতীশ রেড্ডি সরকার ও শিল্পের মধ্যে মেল বন্ধন তৈরির জন্য মোদীর প্রশংসা করেন। মরামারীকালে সরকার যে যোগাযোগ ব্যবস্থায় গুরুত্ব দিয়েছে তার প্রশাংসা করেন রাজেশ জৈন। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios