সোমবার ভারতের আবহাওয়া বিভাগ বা আইএমডি জানিয়েছে, দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের উপর একটি সুস্পষ্ট নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। তবে এটি ওড়িশা-পশ্চিমবঙ্গের দিকে না এসে আগামী ২৪ ঘন্টায় তামিলনাড়ু-পুদুচেরি উপকূলে ঘূর্ণিঝড় হয়ে আছড়ে পড়তে পারে। ২৫ নভেম্বরের মধ্যে পুডুচেরির কারাইকাল এবং উত্তর তামিলনাড়ুর মামাল্লাপুরমের মধ্যে স্থলে প্রবেশ করতে পারে এই ঘুর্ণিঝড়। এমনটাই জানিয়েছেন চেন্নাই-এর আবহাওয়া দপ্তর।
 
বস্তুত, দিন দুই আগে থেকেই দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর জুড়ে একটি নিম্নচাপ তৈরি হচ্ছে বলে জানিয়েছিল আবহাওয়া দপ্তর। সোমবার তারা জানিয়েছে, সএই নিম্নচাপ এখনও রয়েছে এবং বর্তমানে এটি পুদুচেরি থেকে ৬০০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে। আবহাওয়াবিদদের পূর্বাভাস, সম্ভবত পরবর্তী ২৪ ঘন্টার মধ্যে এই নিমচাপ একটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়ে এঘিয়ে আসবে পুদুচেরি ও তামিলনাড়ু উপকূল লক্ষ্য করে।

আরো পড়ুন - বাংলা-সহ ৪ রাজ্য বাড়াচ্ছে চিকিৎসাধীন রোগীর ভার, কোথায় দাঁড়িয়ে ভারদতের করোনা পরিসংখ্যান

আরও পড়ুন - 'চাই সংহত, বিস্তৃত ও সামগ্রিক লড়াই' - জি২০ বৈঠকে প্যারিস চুক্তি নিয়ে বড় দাবি মোদীর

আরও পড়ুন - জানুয়ারির শেষ থেকেই ভারতে শুরু হবে কোভিডের টিকাকরণ, ৫০ শতাংশ দামে মিলছে অক্সফোর্ডের টিকা

অন্যদিকে, দক্ষিণ-পশ্চিম আরব সাগরের উপরও তৈরি হয়েছিল একটি অত্যন্ত তীব্র ঘূর্ণিঝড় 'গতি'। তবে গতি ভারতের দিকে না এসে পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। বর্তমানে এটি সোমালিয়া উপকূলের প্রায় ৪০ কিলোমিটার পূর্বে এবং রাস বিন্নার ৯০-কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পূর্বে অবস্থান করছে।

আরব সাগরের উপকূলে বিশেষ সমস্যা না হলেও বঙ্গোপসাগরে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে আপাতত ২৫ নভেম্বর অবধি জেলে ও অন্যান্য নৌকাকে মাঝ সমুদ্রে না যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে আইএমডি। তারা জানিয়েছে, নিকটবর্তী নিম্নচাপের জেরে বাতাসের গতি অনেকটাই বাড়তে পারে। বিশেষত উপকূলীয় অঞ্চলে ২৫ নভেম্বর, যখন ঘূর্ণিঝড়টি স্থলভাগে প্রবেশ করবে, তখন বায়ুর গতিবেগ প্রতি ঘণ্টায় ৮০-৯০ কিলোমিটার-এ পৌঁছে যেতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে।