লকডাউনের কারণে তালাবন্ধ গোটা ভারত। এতে যেমন পরিবেশের উন্নতি হচ্ছে তেমনি নাকি অপরাধের সংখ্যা কমছে দেশে। কিন্তু লকডানের মাঝেই সেই নিয়মের অন্যথা ঘটল মধ্যপ্রদেশের ভোপালে। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগেত ৫৩ বছরের এক মহিলা ধর্ষণের শিকার হলেন। 

ভারতীয় নৌবাহিনীর অন্দরেও এবার করোনার থাবা, একসঙ্গে আক্রান্ত কমপক্ষে ২০ জন আধিকারিক

করোনা এড়াতে বাড়িতে থাকার পরামর্শ, প্রেসিডেন্টের বিরাগভাজন হয়ে পদ হারালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনা আক্রান্ত বিশ্বে ভারত যেন 'দেবদূত', হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন পেল বিপন্ন ৫৫টি দেশ

জানা যাচ্ছে, দৃষ্টিহীন ওই মহিলা ব্যাঙ্কের আধিকারিক হিসাবে কর্মরত। ঘটনার সময় একাই বাড়িতে ছিলেন তিনি। করোনাভাইরাসের কারণে দেশে হওয়া লকডাউনের জন্য রাজস্থানে আটকে পড়েছেন তাঁর স্বামী সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা। নির্যাতিতার কথা অনুযায়ী, নিজের ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন তিনি। সেই সময় বাড়িতে ঢুকে তাঁকে ধর্ষণ করে এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি। 

নির্যাতিতা মহিলার ইতিমধ্যে মেডিক্যাল পরীক্ষা করান হয়েছে। ভোপালের শাহাপুরা এলাকার এই ঘটনায় ইতিমধ্যে ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। খুব শীঘ্রই অপরাধীকে সনাক্ত করা যাবে বলে জানিয়েছেন অ্যাসিস্টেন্ট সুপারিন্টেনডেন্ট অব পুলিশ সঞ্জয় সাহু। ধর্ষণের ঘটনায় ইতিমধ্যে অজ্ঞাত পরিচয় ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে শাহাপুর থানার পুলিশ। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ভারতীয় পেনাল কোডের ৩৭৬ ও ৩৭৭ ধানায় মামলা রুজু করা হয়েছে।