দিল্লিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের জনসভায় সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং এনআরসি বিরুদ্ধে ব্যানার তুলে ধরেছিলেন দুই মহিলা। এরপরই তাঁদের লাজপত নগরের ভাড়া বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

ঘটনার সূত্রপাত হয় গত রবিবার। ওইদিন দিল্লির লাজপত নগরে একটি সমাবেশ করেছিলেন অমিত শাহ।  ওই দুই মহিলা বাড়ির বারান্দা থেকেই এনআরসি ও সিএএ বিরোধী পোস্টার ও ব্যানার তুলে ধরেছিলেন। সেই সঙ্গে এই দুই বিষয়কে দেশের লজ্জা বলে তুলে ধরেন। দেন 'আজাদি'-র স্লোগান-ও।

তাঁদের একজন দাবি করেছেন, ওই সময়ই অমিত শাহের সমাবেশের আগত বিজেপি-র সদস্য-সমর্থকরা তাঁদের দুজনকে 'ভয় দেখিয়েছিল'। সেই সঙ্গে 'কটু ও নারীর অবমাননাকারী' মন্তব্যও করা হয়েছিল।

তিনি আরও জানিয়েছেন এই ক্ষুব্ধ জনতার সঙ্গে তাল মেলান তাঁদের বাড়িওয়ালাও। তাঁদের দুজনকে বাড়ির ভিতরে প্রায় ৩-৪ ঘন্টা আটকে রাখেন তিনি। সেইসঙ্গে জানিয়ে দেন, তাঁদের বাড়ি ছাড়তে হবে। পরে পুলিশ নিয়ে এসে উদ্ধার করেন তাঁর বাবা। ঘটনার সাত ঘন্টার মধ্যে তাঁদের ফ্ল্যাট ছাড়তে হয়।

ওই মহিলার বক্তব্য, রবিবার ওই প্রতিবাদের মাধ্যমে তিনি শুধুমাত্র তাঁর 'সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার' প্রয়োগ করেছেন। তাঁর মনে হয়েছিল এটাই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনে তাঁর সিএএ আইন ও প্রস্তাবিত এনআরসি বিল নিয়ে অসম্মতি প্রদর্শনের সেরা সুযোগ। কিন্তু তার খেসারত যে এইভাবে দিতে হবে তিনি ভাবেননি।  

আর ওই বাড়িওয়ালার বক্তব্য ওই দুই মহিলাকে বাড়ি ভাড়া দেওয়াই তাঁর উচিত হয়নি। আগে জানলে দিতেনই না। তবে, পুলিশ ওই দুই মহিলার অভিযোগ নথিভুক্ত করেছে। তার ভিত্তিতে একটি মামলা শুরু করা হয়েছে।