কাউন্টডাউন শুরু। চলতি বছরেই রেডমি ব্র্যান্ডের স্মার্ট ফোনে পাওয়া যাবে ইসরোর প্রযুক্তি। ইসরোর নাভআইসি প্রযুক্তি তাদের ফোনে ব্যাবহার করবে রেডমি। এমনই প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সংস্থার আধিকারিক মনুকুমার জৈন। দিন কয়েক আগেই ইসরোর চেয়ারম্যান কে সিভানের সঙ্গে বৈঠকের পর সেই ছবি পোস্ট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন,তাঁরা গর্বের সঙ্গে ঘোষণা করছেন আগামী দিনে রেডমির ফোনে থাকছে ভারতের নিজস্ব প্রযুক্ত নাভআইসি।
রেডমির এই পদক্ষেপে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মেকইন ইন্ডিয়া পরিকল্পনা অনেকটাই ফলপ্রসূ হবে। কারণ দেশীয় প্রযুক্তির সঙ্গে মেল বন্ধন ঘটাবে সাধারণ মানুষের।  চলতি বছরই রেডমি বাজারে আনতে চলছে একগুচ্ছ স্মার্ট ফোন। যেখানে ইসরোর প্রযুক্তি থাকবে বলেই জানান হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে। 

আরও পড়ুনঃ খুন করেন স্বামী সহ পরিবারের ৬ সদস্যকে, এবার জেলে আত্মহত্যার চেষ্টা সিরিয়াল কিলারের

কী এই নাভআইসি প্রযুক্তি? এটি ভারতের নিজস্ব প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তির ব্যবহার করে সঠিক অবস্থান নির্ণয় করা সম্ভব। ভারতের মূল ভূখণ্ডের প্রায় দেড় হাজার কিলোমিটারের নকসা করছে।  সাতটি উপগ্রহের মাধ্যমে এই সিস্টেম চলে। যার মধ্যে তিনটি থাকে ভারত মহাসাগরের জিওস্টেশনারি কক্ষপথে আর বাকি চারিটি থাকে জিও সিনক্রোনাস কক্ষপথে। আর এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে উপকৃত হবেন উপভোক্তারা। কারণ এই প্রযুক্তির সাহায্যে দূরবর্তী এলাকার সঠিক অবস্থান ম্যাপ দেখে নির্ণয় করা সম্ভব। ভয়েস নেভিগেশনও এই প্রযুক্তির অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই প্রযুক্তি অনেকটা জিপিএস-এর মত হলেও  জিপিএস-এর থেকে অনেক বেশই দক্ষ। এটি যেহেতু ভারেতর তৈরি তাই দেশের যেকোনও এলাকার ম্যাপিং নিখুঁতভাবে করতে পারে বলেও দাবি করা হয়েছে ইসরোর পক্ষ থেকে। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে ২০ থেকে ৩০ মিটার পর্যন্ত নিখুঁত ম্যাপ দেখতে পাওয়া যাবে।  মহাকাশ গবেষণায় এই নাভআইসি প্রযুক্তি খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে ইসরোর কাছে।  

আরও পড়ুনঃ সিএএ-এর সমর্থনে অখণ্ড ভারতের ভাবনায় মৌলবী-র জোর সওয়াল, পরিণামে প্রাণনাশের হুমকি

চলতি বছর নানা দামে একগুচ্ছ স্মার্ট ফোন বাজারে আনতে চলছে রেডমি। প্রথমদিকে শুধুমাত্র একটু দামি মোবাইল ফোন গুলিতেই এই নাভআইসি প্রযুক্তি থাকবে। পরবর্তীকালে সব ফোন গুলিতে এই সুবিধে পাওয়া যাবে। কারণ স্ন্যাপড্রাগন প্রযুক্তি ব্যবহারকারী মোবাইল গুলিতেই এই সুবিধে উপলব্ধ হবে। 

আরও পড়ুনঃ দিল্লির হিংসা নিয়ে এবার রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ কংগ্রেস, উদ্বেগ প্রকাশ রাষ্ট্রসংঘের

ইসরোর প্রযুক্তি ব্যবহারের ছাড়পত্র পেয়ে খুশি রেডমি। সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে ২০২০ সালে তাদের পোর্টফোলিওতে বেশ কয়েকটি নতুন প্রযুক্তি আসতে চলেছে। আর ইসরোর পক্ষ থেকে জানান হয়েছে তাঁদের তৈরি দেশীয় প্রযুক্তি ব্যবহার করে লক্ষ লক্ষ মানুষ উপকৃত হবেন। ইসরোর চেয়ারম্যান কে সিভান বলেন ইসরো মহাকাশ প্রযুক্তিকে জোরদার করার জন্য নাভআইসি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। তবে সাধারণ মানুষের ব্যবহারের জন্য এই প্রযুক্ত ছড়িয়ে দিতে পেরে তাঁরা খুশি।