কানের অসহ্য যন্ত্রণায় থাকতে না পেরে চিকিৎসকের  দ্বারস্থ হন বছর ২৪ এর এক যুবক। নাম এলভি, চিনের বাসিন্দা। এলভি-কে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তড়িঘড়ি নিয়ে যাওয়া হয় হুইজহাউ শহরের সানহে হাসপাতালে। সেখানে কানের পরীক্ষার পর যা জানা যায়, তাতে রীতিমতো হতবাক চিকিৎসকেরাও। কানের পরীক্ষার রিপোর্টে জানা যায়, এলভির কানে বাসা বেঁধেছে একটি আরশোলার পরিবার। তাতে মা আরশোলা সহ বাস করছে ১০টিরও বেশি ছানাপোনা। 

আরও পড়ুন- সব থেকে কম সময়ে বিশ্বের সর্বোচ্চ ১৪টি শৃঙ্গ জয় প্রাক্তন সেনার, দেখুন ভিডিও

এলভি-র চিকিৎসক ঝং ইজিন স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, 'কানে তীব্র যন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন এলভি। তিনি জানিয়েছিলেন তাঁর কানে কিছু একটা সব সময় নড়াচড়া করছে। কানের পরীক্ষার রিপোর্টে দেখা গেল ১০টারও বেশি আরশোলা রয়েছে এলভি-র কানে ছিল। কীভাবে এতদিন সেগুলি এলভির কানে ছিল তা বোঝা যাচ্ছে না। ঠিক কতদিন ধরে সেগুলি এলভির কানে ছিল, সেই বিষয়েও সঠিক কোনও ধারণা নেই। তবে সেগুলি বের করা হয়েছে। আপাতত সুস্থ আছেন এলভি।'

আরও পড়ুন- বাতিল হয়েছে তিন বছর, প্রতিবেশী রাষ্ট্রে এখনও নিষিদ্ধ নোটের রমরমা, রয়েছে ৭০০কোটি টাকা

টুইজারের সাহায্যে এলভির কান থেকে ১০টিরও বেশি আরশোলা বের করে দেন চিকিৎসকেরা। এলভির পরিবারের তরফ থেকে জানা গিয়েছে, বিছানাতেই আধ খাওয়া খাবারের প্যাকেট রেখে দিন এলভি। সেই খাবারের প্যাকেট থেকেই আরশোলা এলভির কান অবধি পৌঁছে গিয়েছে বলেই অনুমান করছেন তাঁরা।