২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার ছিল দশক শেষের অন্তিম সূর্য গ্রহণ।  ১৭২ বছর আগে এমনই অসামান্য মহাকাশীয় ঘটনার সাক্ষী ছিল পৃথিবী। টানা আড়াই ঘন্টা ধরে চলেছিল এই মহাজাগতিক দৃশ্য। বিশ্বের বিভিন্ন স্থান থেকে এই সূর্যগ্রহণে দেখা গিয়েছিল ফায়ার অফ রিং। আরও নানা অংশ থেকে দেখা গিয়েছিল বর্ণচক্রীয় সূর্যগ্রহণ। কেবলমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে এই গ্রহণ দেখা যায়নি। 

আরও পড়ুন- রাষ্ট্রসংঘে ফের কাশ্মীর ইস্যু উত্থাপনের চেষ্টা,আবারও মুখ পুড়ল চিন-পাকিস্তানের

 

 

ভারত-সহ বিশ্বের অন্যান্য দেশে সূর্যোদয়ের সময়ে স্পষ্টভাবে দেখা গিয়েছিল এই সূর্যগ্রহণ। তবে বিশ্বের একমাত্র একটি দেশ থেকে সূর্যগ্রহণের এই দৃশ্য ছিল একেবারে অন্যরকম। সেই দেশটি হল পারস্য উপসাগরে অবস্থিত কাতারের আল ওয়াকরাহ শহর। এই শহরে দশকের শেষ সূর্যগ্রহণ যেভাবে দেখেছে, সারা বিশ্ব সেই দৃশ্য দেখতে পায়নি। সেই শহরের একজন ফটোগ্রাফার মহাজাগতিক এই দৃশ্য ক্যামেরাবন্দী করেছেন। যা এখন রীতিমতো ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। তা হল 'ডেভিলস হর্ণ' অর্থাৎ শয়তানের সিং। আইএফএল সাইন্সের-এর তরফ থেকেও এই ছবিগুলো শেয়ার করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন- পূন্যস্নান করানোর পরই গর্ভবতী, মুখোশ খুলে গেল আরও এক স্বঘোষিত ধর্মগুরুর

কাতারের সেই ফটোগ্রাফারের নাম এলিয়ান চ্যাসিওটিস। তিনি নিজের সোশ্যাল মিডিয়ার পেজে শেয়ার করেছেন এই দুর্লভ মুহূর্তের ছবি। নাসার অ্যাস্ট্রোনমি পিকচার অফ দ্য ডে ওয়েবসাইটে এই ছবিটি তাঁরা পোস্ট করেছেন। এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয় দশক শেষের সূর্যগ্রহণের এই দুর্লভ ছবি। এই ছবিটি তোলার জন্য ব্যবহার করা হয়েছিল মিররলেস সনি এ ৭৪৮ মার্ক ২ সহ একটি সিগমা ১৫০-৬০০ মিমি জুম লেন্স-এর।