নিজের দেশের অর্থনীতির বেহাল অবস্থা। সামাল দিতে এই বছর রেকর্ড পরিমাণ রিজার্ভ ব্যাঙ্কের উদ্বৃত্ত অর্থ নিয়ে নিয়েছে  কেন্দ্রীয় সরকার। এরই মধ্যে রাশিয়ার সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক আর মজবুত করতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাশিয়াকে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেওয়ার অঙ্গীকার করলেন। এই অর্থ রাশিয়ার ফার ইস্ট রিজিয়নের উন্নয়নের কাজে লাগানো হবে। এটি মোদী সরকারের অ্যাক্ট ইস্ট নীতির অংশ বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার পঞ্চম ইস্টার্ন ইকোমনমিক ফোরামে বলতে উঠে প্রথমেই নরেন্দ্র মোদী ভারত ও ফার ইস্ট রাশিয়ার যোগাযোগের ইতিহাস তুলে ধরেন। তিনি জানান, ভারতের সঙ্গে এই অঞ্চলের যোগায়োগ বহুদিনের। এমনকী মাঝে সোভিয়েত আমলে যখন অন্যান্য দেশের নাগরিকদের এই এলাকায় আসতে বাদা দেওযাহত, ভারতীয় দের জন্য দ্বার উন্মুক্ত ছিল ভ্লাদিভস্তকের। রাশিয়ার ফার ইস্ট রিজিয়নের এই রাজধানি শহরে ভারতীয়রৈাই প্রথম দূতাবাস স্থাপন করেছিল।      

আরও পড়ুন - এবার জলপথেও জুড়ছে ভারত-রাশিয়া, পুতিনের সঙ্গে ঐতিহাসিক চুক্তি প্রধানমন্ত্রীর

আরো পড়ুন - চন্দ্রযানের পর তৈরি হচ্ছে গগনযান, এই যুগের রাকেশ-রবিশদের প্রশিক্ষণ দেবে সেই রাশিয়া

আরো পড়ুন - পুতিনকে পাশে নিয়ে নাম না করেই পাকিস্তানকে তোপ, রুশ সফরে বড় সাফল্য পেলেন মোদী

আরো পড়ুন - সেপ্টেম্বরে রাশিয়া যাবেন মোদী, তার আগে মস্কো সফরে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল

এরপরই ভারতের প্রদানমন্ত্রী জানান তাঁর সরকার নতুন ভারত গড়ে তুলছে 'সবকা সাথ সবকা বিকাশ' মন্ত্রে। ২০২৪ সালের মধ্য়েই দেশকে ৫ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলারের অর্থনীতিতে নিয়ে যাওয়াটাই তাঁ লক্ষ্য। আর এই 'সবকা বিকাশ'-এর মধ্যে ভারতের মিত্র দেশগুলিও রয়েছে। এই কারণেই তাঁর সরকার 'অ্যাক্ট ইস্ট' নীতি গ্রহণ করেছে। এই নীতির মাধ্যমে তাঁর সরকার পূর্ব এশিয়ার উন্নয়নে সরাসরি অংশ নিচ্ছে।

এরপরই তিনি ওই ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেওযার কথা ঘোষণা করেন। তাঁর মতে এতে দুই দেশের অর্থানীতিগত কূটনৈতিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে। পঞ্চম ইস্টার্ন ইকোনমিক ফোরামের আলোচনা সম্পর্কে মোদী বলেন এদিনের আলোচনা শুধু দূর প্রাচ্যের মানুষের কল্যান করবে না, সমগ্র মানব জাতিরই কল্যানে কাজে আসবে।