পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে রক্ষা করাই এখন বড় চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে পাকিস্তানের কাছে। এ ভাবেই ইমরান খানের সরকারকে আক্রমণ করলেন পাকিস্তানের বিরোধী দলনেতা বিলাওয়াল ভুট্টো। পাকিস্তান পিপলস পার্টি বা পিপিপ চেয়ারম্যান কটাক্ষ করে বলেন, আগে শ্রীনগর ছিনিয়ে নেওয়ার কথা বলত পাকিস্তান। আর এখন কীভাব পাক অধিকৃত কাশ্মীরের মুজফফরাবাদকে রক্ষা করবে, তা নিয়েই চিন্তা করতে হচ্ছে। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের রাজধানী মুজফফরাবাদ। 

পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যখন ভারতে পরমাণু বোমা ফেলার হুমকি দিচ্ছেন, তখন দেশের মধ্যেই এমন আক্রমণে কার্যত মুখ পুড়ল তাঁর সরকারের। বিলওয়াল ভুট্টোর অভিযোগ, ইমরান সরকারের দুর্বল নীতির জন্যই পাক অধিকৃত কাশ্মীরও হাতছাড়া হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। 

আরও পড়ুন- সরাসরি পরমাণু যুদ্ধের হুমকি! কাশ্মীর নিয়ে কোনঠাসা, মরিয়া হলেন ইমরান

সোমবারই ফ্রান্সে জি ৭ শীর্ষ সম্মেলনের মাঝে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই বৈঠকে কাশ্মীরকে ভারত- পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক বিষয় বলে একমত হন দুই রাষ্ট্রনেতাই। এর পরেই পাক প্রধানমন্ত্রী হুমকির সুরে বলেন, কাশ্মীর দখলে প্রয়োজনে পরমাণু বোমা ব্যবহারেও পিছপা হবে না ইসলামাবাদ। 

ভারত যে পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে নিজেদের অংশ বলেই মনে করে, তা স্পষ্ট করে দিয়েছে মোদী সরকার। সংসদে দাঁড়িয়ে সেকথা বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংও বলেছেন, এবার পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা হলে তা কাশ্মীর নিয়ে নয়, হবে পাক অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে। ভারতের এই দাবিতে পাক রাজনৈতিক মহলেও যে জোর ধাক্কা লেগেছে, ভুট্টোর মন্তব্যই তার প্রমাণ।