কাশ্মীর নিয়ে বিশ্বে ভারতকে একঘরে করতে চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু একের পর এক আন্তর্জাতিক সংগঠন ও বিভিন্ন দেশ কাশ্মীরকে ভারতের অভ্যন্তরীন বিষয় বলে ঘোষণা করারদের সেই পরিকল্পনা বুমেরাং হয়ে গিয়েছে। এমনকী মুসলিম বিশ্বেও আপাতত কোনঠাসা ইসলামাবাদ। এই অবস্থায় দেশবাসীর আস্থা জিততে সোমবার সন্ধ্যায় ভারতের বিরুদ্ধে রীতিমতো পরমাণু যুদ্ধের হুমকি দিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

এদিন তিনি বলেন, কাশ্মীর নিয়ে দ্বন্দ্ব যেই দিকে এগোচ্ছে তাতে যুদ্ধ বাধতে পারে। আর সেই ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক নহলের মাথায় রাখতে হবে যুদ্ধটা হবে দুই পরমাণু শক্তিধর দেশের মধ্যে। পরমাণু যুদ্ধে জয় কেউই পাবে না, মাঝখান থেকে প্রভাব পড়বে বিশ্বব্যপি। তাই বিশ্বের সুপার পাওয়ার দেশগুলিকে কাশ্মীর নিয়ে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তান কাশ্মীর নিয়ে যতদূর যেতে হয় যাবে বলে প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়েছেন তিনি।

আরো পড়ুন - পাকিস্তানের হাঁড়ির হাল, সরকারি মিটিং-এ চা-বিস্কুটও বন্ধ

আরও পড়ুন - 'ভারতের সঙ্গে আলোচনা অর্থহীন', শান্তি প্রতিষ্ঠায় কেন্দ্রের সঙ্গে বৈঠকে নারাজ পাকিস্তান

আরও পড়ুন - মার্কিনি গুঁতোর শিবের শরণে ইমরান! বিজেপির দিকে আঙুল তুলে নামতে হল মুখরক্ষায়

আরো পড়ুন - মোদীর হাতে পরমাণু বোমা, উদ্বীগ্ন ইমরান! রাজনাথের বিবৃতিতে নড়ে গেল পাকিস্তান

তিনি দাবি করেন, ক্ষমতায় আসার পরপর তিনি ভারতের সঙ্গে আলোচনারক টেবিলে বসার অনেক চেষ্টা করেছেন। কিন্তু সবসময়ই কোনও না কোনও সমস্যা বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তারপর ভারতের লোকসভা নির্বাচন শেষ হওয়ার জন্য অপেক্ষা করেছিলেন। কিন্তু, মোদী দ্বিতীয়বার সরকার গঠনের পরই জম্মু কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে তাকে ভারতের অংশ বলে ঘোষণা করে দিয়েছেন। যা রাষ্ট্রসংঘের সনদ এমনকী ভারতের নিজেদের সংবিধানেরও লঙ্ঘন করা বলে দাবি করেছেন তিনি। তাই আলোচনার আর কোনও জায়গা নেই।