'বর্তমানে' কোনও ভারতীয় সৈন্যকে আটক করেনি চিন। ভারত জবাবদিহি চাওয়ায় এমনই মন্তব্য চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখাপাত্র ঝা লিজিয়ানের। শুক্রবার ভারত চিন সীমান্ত উত্তেজনা নিয়ে বেজিং-এ সাংবাদিক বৈঠক করেন তিনি। সেখানেই একাধিক প্রশ্নের উত্তর দেন। তখনই লিজিয়ান বলেন তিনি যতদূর জানান কোনও ভারতীয় সেনাকে আটক করা হয়নি। 

রান্নাঘরে থেকে শোয়ার ঘর মৃতদেহের 'ছড়াছড়ি', আমেদাবাদে ৬ জনের মৃত্যু ঘিরে রহস্য ঘনীভূত ...

গালওয়ান উপত্যকার নামকরণের ইতিহাস, কারাকোরামের পাহাড়ে মিশে রয়েছেন গুলামের শৈশব ...

ভারত কোনও চিনা সেনাকে আটকে রেখেছে কিনা জানতে চাইলে সম্পূর্ণ অন্য পথে হাঁটা দেন লিজিয়ান। তিনি বলেন, ভারত ও চিন কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে গালওয়ান সমস্যা নিয়ে আলোচনা করছে। পরিস্থিতি নিষ্পত্তি করতে চেষ্টা করছে। তার বেশি তাঁর কাছে আর কোনও তথ্য নেই যা সরবরাহ করা যায়। তেমনই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। 

সোমবার রাতে গালওয়ান উপত্যকায় ১৪ নম্বর পয়েন্টের কাছে ভারতী ও চিনা সেনারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। চিনা সেনারা ভারতীয় সেনাদের ওপর চড়াও হয়ে প্রবল মারধর করে। পাল্টা মার দেয় ভারতীয় সেনাও। দুই পক্ষের সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যু হয়। সীমান্ত উত্তাপ কমাতে দফায় দফায় সামরিক পর্যায়ে বৈঠক হচ্ছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ২ মেজরসহ ১০ ভারতীয় জওয়ানকে মুক্তি দিয়েছে চিন। কিন্তু চিন আর কোনও ভারতীয় সেনাকে আটকে রেখেছে কিনা তা জানতে চাইলে চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র এড়িয়ে যান বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ১৯৬৭ সালের পর ভারত চিন সীমান্তে এটাই ছিল সবথেকে বড় সংঘর্ষ। ৬৭ সালে ভারতের ৮০ ও চিনের ৩০০ জওয়ান নিহত হয়েছিল সীমান্ত সংঘর্ষে। 

কাকপক্ষীতেও টের পেলনা বায়ু সেনার প্রধানের লে সফর, লাদাখে কি যুদ্ধের দাদামা বাজল ..