বৃহস্পতিবার সকালে করাচি  রাউলপিণ্ডি তেজগাম এক্সপ্রেসে অগ্নকিণ্ডের ঘটনায় ৭১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন বহু মানুষ। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কা জনক। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে স্থানীয় প্রশাসন। 

পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় বিস্ফোরণ হয়। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে গ্যাস স্টোভ বিস্ফোরণের জেরে রাচি  রাউলপিণ্ডি তেজগাম এক্সপ্রেসে  অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় টেলিভিশনের একটি ফুটেজে ট্রেনের ভিতর থেকে আর্তনাদের আওয়াজ শুনতে পাওয়া গিয়েছে। রাচি  রাউলপিণ্ডি তেজগাম এক্সপ্রেসের ওই ট্রেনের বেশিরভাগ তীর্থযাত্রী ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। সকালে স্টোভ জ্বালিয়ে প্রাতঃরাশ প্রস্তুত করার সময় স্টোভে বিস্ফোরণ হয় বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। 


করাচি রাউলপিণ্ডি তেজগ্রাম এক্সপ্রেস প্রতিদিন করাচি ও রাউলপিণ্ডি থেকে ছাড়ে।  রহিম ইয়ার খান স্টেশনের কাছে এই অগ্নিকাণ্ড হয়ে বলে জানা গিয়েছে। অগ্নিকাণ্ডের পরেই স্থানীয় বাসিন্দারা উদ্ধারের জন্য ছুটে আসে বলে জানা গিয়েছে। উদ্ধারকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁচেছে। আগুন বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে এসেছে। কী কারণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে,  তা জানা যায়নি। ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।