ভুটানের পর আরব দুনিয়ায় সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিদেস দফতর থেকে জানানো হয়েছে আগামী ২৩ ও ২৪ অগাস্ট আরব আমিরশাহি যাবেন তিনি। সেখানে সেই দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান 'অর্ডার অব জায়েদ' দেওয়া হবে। তারপর প্রধানমন্ত্রী যাবেন বাহরিন। সেখানে থাকবেন ২৫ ও ২৬ অগাস্ট। সেই দেশে শ্রীনাথজীর মন্দিরের সংস্কারের কাজের উদ্বোধন করবেন তিনি।

সংযুক্ত আরব আমিরশাহির জনক বলা হয় শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহহিয়ান-কে। তাঁর নামেই সেই দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান দেওয়া হয়। এই বছর আবার শেখ জায়েদের শততম জন্মবার্ষিকি। আর এই বিশেষ বছরেই এই সম্মান দেওয়া হচ্ছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে। বিদেশ দফতর থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর এই সম্মানপ্রাপ্তি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।

আরও একটি দিক থেক আরব দুনিয়ায় নরেন্দ্র মোদীর এই সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সদ্যই ৩৭০ ধারা বাতিল করেছে মোদী সরকার। তাতে করে বিশেষ মর্যাদা হারিয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর। একই সঙ্গে এই রাজ্যকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভেঙে দেওয়া হয়েছে। বাইরের দুনিয়া থেকে সম্পর্কচ্যুত করে উপত্যকাকে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছে।

এই নিয়ে পাকিস্তান আন্তর্জাতিক মহলে মোদী সরকারকে মুসলিম বিদ্বেষী, হিন্দু আধিপত্যবাদী হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টা করছে। তারপর এই প্রথম আরব দুনিয়ায় পা রাখবেন নরেন্দ্র মোদী। অর্গানাইজেশন অব মুসলিম কান্ট্রিজ বা ওআইসি-র অন্যতম শক্তিশালী দেশ ইউএই। তারা ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে কীভাবে গ্রহণ করে, তার মাধ্যমে মোদী সরকারের কাশ্মীর পদক্ষেপ নিয়ে মুসলিম দুনিয়ার মনোভাবের একটা স্পষ্ট ইঙ্গিত মিলবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট মহল।