কালিদাসের শকুন্তলার কাছে গান শুনতে আসত বনের হরিণরা। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিও ক্লিপ সেই শকুন্তলার কথাই মনে করিয়ে দিয়েছে। যেখানে আধুনিক শকুন্তলার হার্প (একপ্রকার বিদেশি তারযন্ত্র) বাজানো শুনে মুগ্ধ হয়ে গিয়েছে বনের হরিণ। তবে ভিডিওটিতে লুকিয়ে আছে মজাও।

'ওয়েলকাম টু নেচার' নামে একটি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে ভিডিওটি শেয়ার করা হয়েছে। ভিডিওটিতে এক মহিলাকে একটি পার্কে দাঁড়িয়ে একমনে হার্প বাজাতে দেখা যাচ্ছে। পিছন থেকে আসছিল একটি হরিণ। সেই বাজনা শুনে সে এগিয়ে এসে থমকে দাঁড়ায়। কিছুক্ষণ বন্য প্রাণীটিকে সেই সুরেলা বাজনার তান উপভোগ করতে দেখা যায়। এইভাবে সে ওই আধুনিক যুগের শকুন্তলার দিকে অনেকটাই এগিয়ে এসেছিল। তবে আসল মজাটা লুকিয়ে ভিডিও-র একেবারে শেষে। মজাটা কি জানতে হলে দেখতে হবে ভিডিওটি -

এই ভিডিও ক্লিপে যে মহিলাকে হার্প বাজাতে দেখা যাচ্ছে, অর্থাৎ 'আধুনিক শকুন্তলা' হলেন নাওমি এসভি। বেশ কয়েকদিন আগেই তিনি তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে আসল ভিডিও ক্লিপটি পোস্ট করেছিলেন। সঙ্গের ক্যাপশনে লিখেছিলেন 'একটি হরিণ আমার হার্প বাজানো-কে ডিজনি মুভি বানিয়ে দিল'। বোঝাই যাচ্ছে নিজের হার্প বাজানোর ভিডিও বানাতে গিয়ে, প্রকৃতির খেয়ালেই এই মন ভালো করা ভিডিওটি তৈরি হয়েছে।

টুইটারে ভিডিওটি সেয়ার করার পর দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। নেটিজেনরা যেমন ভিডিওর শেষটা দেখে মজা পেয়েছেন, তেমনই মুগ্ধ নাওমি-র বাজনা শুনে। অনেকেই বলছেন এই ভিডিও-তে নাওমিকে দেখে মনে হচ্ছে ডিজনি-র রাজকন্যা। আবার কেউ কেউ বলেছেন এই ভিডিও মনে করিয়ে দিয়েছে সঙ্গীত হল একটি সর্বজনীন ভাষা। এমনকি বন্যপ্রাণীও গান-বাজনায় মুগ্ধ হয়ে যায়।