চিনে রহস্যজনক করোনা ভাইরাসে সংক্রমণের ঘটনা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। সরকারি ভাবে এই ভাইরাসে এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৯। এরমধ্যেই দেশের ১৩টি প্রদেশে নতুন করে আরো ৪৪০  জনের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। চিনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন গত সোমবারই এই ভাইরাসের প্রকোপের কথা স্বীকার করে নিয়েছে। বর্তমানে গোটা দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৯০০ বেশি।

আরও পড়ুন: পাশে বসে ইমরান, ভারতের অস্বস্তি বাড়িয়ে কাশ্মীর নিয়ে ফের মধ্যস্থতার প্রস্তাব ট্রাম্পের

 ইউনান প্রদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। আতঙ্ক ছড়িয়েছে  বেইজিং-সাংহাইয়ের মত শহরেও। গুয়াংডঙেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত একাধিক রোগীর দেখা মিলেছে। 

 

রহস্যজনক এই করোনা ভাইরাস ধীরে ধীরে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে। আগেই তাইওয়ান, থাইল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে এই ভাইরাসের সংক্রামণের খবর পাওয়া গিয়েছিল। এবার আমেরিকার ওয়াশিংটন রাজ্যেও করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। চিন থেকে আগত এক ব্যক্তির শরীরে এই রোগের ভাইরাস পাওয়া গেছে বলে জানা গেছে। 

আরও পড়বেন: নতুন জামা পরে বসে রয়েছে মার্জার সুন্দরী, মঙ্গল কামনায় চলছে আরতি, ভাইরাল হল টিকটক ভিডিও

পরিস্থিতি মোকাবিলায় কপরোনা ভাইরাস নিয়ে সুইজারল্যান্ডের জেনিভায় বৈঠকে বসছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু। এই ভাইরাসের জন্য জনস্বাস্থ্যে জরুরি অবস্থা জারি নিয়ে আলোচনা হতে পারে বৈঠকে। 

গত ডিসেম্বরে চিনের ইউনান প্রদেশে  প্রথমবার করোনা ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়। তবে সার্সের থেকেও করোনা ভাইরাস বিপজ্জনক বলে দাবি করছেন বিশেষজ্ঞরা। মূলত গবাদি পশু থেকেই ছড়ায় করোনা ভাইরাস। ফলত পশু-পাখি ও গবাদি পশুর সংস্পর্শে থাকা মানুষদের মধ্যে করোনা ভাইরাসে সংক্রমণের সম্ভাবনা বেশি। 

 

 

পরিস্থিতি মোকাবিলায় তৎপর রয়েছে ভারতও। কলকাতা, দিল্লি, মুম্বই সহ দেশের সাত বিমানবন্দরে জারি করা হয়েছে সতর্কতা। চিন থেকে আসা যাত্রীদের স্বাস্থ্যপরীক্ষা করা হচ্ছে। ইনফ্রারেড থআর্মাল স্ক্যানার ক্যামেরার মাধ্যমে চলছে যাত্রীদের খুঁটিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা।গত ৪০ দিনের মধ্যে চিনে গিয়েছেন এমন যাত্রীদের উপর বাড়তি নজর রাখা হচ্ছে।