আইপিএলের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে আঁটোসাঁটো বোলিং রাজস্থান রয়্যালসের। এমএস ধোনির দলকে ২০ ওভারে মাত্র  রানে বেঁধে রাখল স্টিভ স্মিথের দল। এদিন টসে জিতে ব্য়াটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন সিএসকে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। চেন্নাইয়ের হয়ে ওপেনিংয়ে নামেন স্যাম কুরান ও ফাফ ডুপ্লেসি।  কিন্তু শুরুটা ভাল হয়নি সিএসকে। তৃতীয় ওভারেই দলের ১৩ রানের মাথায় আউট হয়ে যান ফর্মে থাকা ফাফ ডুপ্লেসি। জোফ্রা আর্চারের বলে ১০ রান করে আউট হন তিনি। দ্বিতীয় উইকেটের জন্যই বেশিক্ষণ প্রতীক্ষা করতে হয়নি রাজস্থানকে। চতুর্থ ওভারে কার্তিক ত্যাগির বলে ৮ রান করে আউট হন শেন ওয়াটসন। পাওয়ার প্লে-তে পরপর উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় সিএসকে।

এরপর ইনিংসের রাশ ধরার চেষ্টা করেন স্যাম কুরান ও অম্বাতি রায়ডু। কিন্তু তারাও ব্শিক্ষণ পার্টনারশিপ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি। নবম ওভারে ৫৩ রানের মাথায় আউট হন স্যাম কুরান। শ্রেয়স গোপালের বলে ২২ রান করে আউট হন তিনি। দশম ওভারে আউট হন সিএসকের নির্ভরযোগ্য মিড অর্ডার ব্যাটসম্যান অম্বাতি রায়ডু। রাহুল তেওয়াটিয়ার বলে ১৩ রান করে আউট হন তিনি। ১০ ওভার শেষে সিএসকের স্কোর দাঁড়ায় ৫৬ রানে ৪ উইকেট। এরপর চেন্নাইয়ের ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যান এমএস ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা। ধীরে ধীরে এগিয়ে যান তাদের পার্টনার শিপ। ১৫ ওভার শেষে চেন্নাই সুপার কিংসের স্কোর দাঁড়ায় ৮৯ রানে ৪ উইকেট। 

শেষ ৫ ওভারে রানের গতিবেগ কিছুটা বাড়ানোর চেষ্টা করেন ধোনি ও জাদেজা। আক্রমণাত্বক শট খেলতেও শুরু করেন দুজন। ১৭ ওভার শেষে ১০০ রান হয় চেন্নাই সুপার কিংসের। ৫০ রানের পার্টনারশিপ পূরণ করেন জাদেজা ও ধোনি। কিন্তু ১৮ তম ওভারে দ্রুত গতিতে রান তুলতে গিয়ে আউট হন এমএস ধোনি। ২৮ রান করে রান আউট হন তিনি। ১৮ ওভার শেষে সিএসকের স্কোর  দাঁড়ায় ১০৭ রানে ৫ উইকেট। এরপর নামে কেদার যাদব। ১৯ তম ওভারে আসে ১১ রান। শেষ ওভারে বড় হিট করার চেষ্টা করলেও খুব একটা সফল হননি জাদেজা ও কেদার যাদব। ২০ ওভারে ১২৫ রানে শেষ হয় সিএসকের ইনিংস। রাজস্থান রয়্যালসের টার্গেট ১২৬ রান।