এবারও হল না। আইপিএল ট্রফি জয়ের স্বপ্ন অধরাই থেকে গেল বিরাট কোহলি ও তার দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের। এবার আইপিএল জয় নিয়ে প্রথম থেকেই আশাবাদী ছিলেন বিরাট কোহলি। দলের সামঞ্জস্য নিয়েও খুশি ছিলেন। প্রতিযোগিতার শুরুচা ভাল করেছিল আরসিবি। কিন্তু শেষের দিকে গ্রুপ লিগে টানা চারটি হার ও প্লে অফে সানরাইজার্সের কাছে হেরে বিদায় নিত হল বিরাট ব্রিগেড। ১৩ বছর ধরে আইপিএলে আরসিবির হয়েই খেলছেন বিরাট। তারমধ্যে ৮ বার অধিনায়ক হিসেবে। এখনও পর্যন্ত দলকে ট্রফি দিতে পারেননি ভিকে। এবার সেই বিষয় নিয়ে প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছে। আর সবার প্রথম প্রশ্ন বিরাটকে সরানো নিয়ে প্রশ্ন তুললেন কোহলির  অধিনায়কত্বের কট্টর সমালোচক গৌতম গম্ভীর।

'গদি ছাড়ুন বিরাট'-
কেকেআরের অধিনায়ক থাকাকালীন দলকে দুবার ইপিএল চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন গৌতম গম্ভীর। কিন্তু যখন ব্যর্থতার সম্মুখীন হয়েছেন তাকেও সরিয়ে দিয়েছে কেকেআর। অন্যান্য দলের ক্ষেত্রেও একই জিনিস প্রযোজ্য হয়েছে। ব্যতিক্রিম রোহিত শর্মা ও এমএস ধোনি। কারণ তারা দলকে সাফল্য এনে দিয়েছে। গম্ভীরের বলেছেন, হয় এবার বিরাটের নিজে থেকে আরসিবির অধিনায়কত্ব ছাড়া উচিত। আর নাহয়, আরসিবির উচিত ওঁকে বাদ দিয়ে অন্য কারও কথা ভাবা। গম্ভীর বলছেন, আট বছরটা অনেক দীর্ঘ সময়। এতদিন ট্রফি না দিতে পারলে অন্য যে কোনও অধিনায়ককেই সরানো হত। এছাড়াও প্রাক্তন কেকেআর ও আইপিএল জয়ী অধিনায়ক বলেছেন, ‘অনেক হয়েছে। এবার গদি ছাড়ুন বিরাট।’ 

বিরাটের ক্ষেত্রে আলাদা নিয়ম কেন?-
গৌতম গম্ভীর আরও জানিয়েছেন,'এই মরসুমে প্লে অফে ওঠার যোগ্যতাও ছিল না বিরাটের। ভাগ্যের জোরে উঠেছে। ধোনি ও রোহিত দলকে তিনবার ও চারবার ট্রফি এনে দিয়েছেন। পঞ্চমবার ট্রফি জয়ের দোড়গোড়ায় রয়েছে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। কিন্তু বিরাট কখনও  ওদের মধ্যে পড়ে না। অশ্বিন মাত্র ২ বছর ব্যর্থ হওয়াতেই তাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমি নিশ্চিত সাফল্য এনে দিতে না পারলে রোহিতকেও এতদিনে সরিয়ে দিত মুম্বই। বিরাটের জন্য নিয়ম আলাদা হওয়া উচিত নয়। দায় নেওয়ার প্রবণতা একেবারে উপর থেকে শুরু হওয়া উচিত। নেতার কাছ থেকে শুরু হওয়া উচিত। সাফল্যের কৃতিত্ব যেমন তোমার, ব্যর্থতার দায়ও তোমার।'