অবশেষে কলকাতা তথা বঙ্গবাসীর প্রতীক্ষার অবসান। আইপিএল ২০২০-র পঞ্চম ম্যাচে বুধবার মাঠে নামছে আমাদের সকলের প্রাণের দল কলকাতা নাইট রাইডার্স। প্রতিপক্ষ রোহিত শর্মার মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। আবুধাবিতে হবে এই মেগা ম্য়াচ। কলকাতার ইডেন গার্ডেন্স হোক বা সুদূর আবুধাবি প্রিয় দলের হয়ে গলা ফাটাতে প্রস্তুত আপামর বাংলা। ঘরে টিভির পর্দাতে বসেই দলের দ্বাদশ প্লেয়ারের ভূমিকা পালন করবে এবার কেকেআর সমর্থকরা। ফলে প্রথম ম্যাচে প্রিয় দলের জয়ের বিষয়ে এখন থেকেই আত্মবিশ্বাসী সকলেই।

এবার যদি ক্রিকেটীয় যুক্তিতে আসি। তাহলে কিন্তু রোহিত শর্মার দল বরাবরই শক্ত গাঁট কেকেআরের কাছে। পরিসংখ্যান দিক থেকেও ১৯-৬ এগিয়ে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। যদিও আইপিএলের প্রথম ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে হারতে হয়েছে গতবারের চ্যাম্পিয়নদের। কেকেআরের বিরুদ্ধে নামার আগে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স টিম ম্যানেজমেন্টকে ভাবাচ্ছে কয়েকটি বিষয়। কারণ প্রথম ম্যাচে ওপেনার রোহিত শর্মা ও কুইন্টন ডিকক ভাল শুরু করেছিল। মিডল অর্ডারেও লরান এগিয়ে গিয়েছিল সুর্যকুমার যাদব ও সৌরভ তিওয়ারি।  কিন্তু লোয়ার অর্ডারে রান করতে ব্যর্থ হয় কায়রন পোলার্ড , হার্দিক পান্ডিয়া ও ক্রুণাল পান্ডিয়ারা। যার ফলে যেই রান ১৮০-র বেশি হওয়ার কথা ছিল, মুম্বইকে থামতে হয়েছিল ১৬২ রানে। বোলিং বিভাগেও বুমার, বোল্ট , প্যাটিনসনরা আঁটোসাটো বোলিং করে। একইসঙ্গে শুরুর দিকে উইকেটও এনে দিয়েছিল। কিন্তু মুম্বইয়ের স্পিন অ্যাটাককে অনেক বেশি দুর্বল দেখায়। ফলে রাহুল চাহর ও ক্রুণাল পান্ডিয়াদের আরও বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে কেকেআরের বিরুদ্ধে ভাল ফল করার জন্য।

অপরদিকে আইপিএলের প্রথম ম্যাচে নামার আগে সম্পূর্ণ আত্মবিশ্বাসী দীনেশ কার্তিকের কলকাতা নাইট রাইডার্স। অনুশীলনেও গোটা দলকে অন্যান্য বারের তুলনায় অনেক বেশি সিরিয়াস দেখিয়েছে। অনুসীলনে নিজেদের উজাড় করে দিয়েছে কার্তিক, শুভমান গিল, নীতিশ রানা, রাসেল, নারিন, কুলদীপ যাদবরা। দলে দেশি-বিদেশি প্লেয়ারের কম্বিনেশন অন্য়ান্য দলের থেকে ভাল রয়েছে কেকেআরে। ব্যাটিংয়ে রয়েছে টম ব্য়ান্টন, নীতিশ রানা, দীনেশ কার্কি, শুভমান গিল, আন্দ্রে রাসেল, ইয়ন মর্গ্যানদের মত তারকাদের নাম। স্পিন বোলিং বিভাগে সুনীল নারিন ও কুলদীপ যাদবের মত তারকা বোলার। অপরদিকে পেস বোলিং অ্যাটাকে রয়েছে প্য়াট কামিন্স, প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা ও কমলেশ নাগোরকোটির মত নাম। ফলে শক্তির দিক থেকে মুম্বইকে টক্কর দেওয়ার সবরকম রশদই রয়েছে নাইটদের। আর মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে নামার আগে রোহিত শর্মা থেকে শুরু করে জশপ্রীত বুমরা সকলের জন্য নির্দিষ্ট পরিকল্পনাও তৈরি রেখেছে কেকেআর টিম মেনেজমেন্ট। ফলে জয় দিয়ে আইপিএল মরসুম শুরু করার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী কেকেআর।

ম্যাচ প্রেডিকশন- দুই দলের সামগ্রিক বিভাগের শক্তি বিচার করলে ব্যাটিং বিভাগের গভীরতা মুম্বইয়ের থেকে বেশি কলকাতা নাইট রাইডার্সের। বোলিং বিভাগে পেস অ্যাটাক কলকাতার থেকে ভাল হলেও, স্পিন বিভাগে মুম্বইয়ের থেকে অনেক এগিয়ে কেকেআর। ফলে সবদিক বিচার করলে কেকেআর-মুম্বই দ্বৈরথে জয়ী হতে চলেছে নাইটরা।