আজ আইপিএলে ফের মাঠে নামছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। প্রতিপক্ষ এখনও পর্যন্ত আইপিএল ২০২০-তে অপ্রতিরোধ্য রাজস্থান রয়্যালস। একদিকে পর পর দুটি ম্যাচ জিতে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে রয়েছে স্টিভ স্মিথের দল। অপরদিকে, প্রথম ম্যাচ মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে হারলেও, দ্বিতীয় ম্যাচে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে সাত উইকেটে জয় আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বাড়িয়ে দিয়েছে দীনেশ কার্তিকের দলের। ফলে বুধবার দুবাই ইন্টারন্যাশানাল স্টেডিয়ামে আইপিএলের আরও একটি রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ দখার জন্য প্রহর গুনছে ক্রিকেট বিশ্ব।

সকলকে চমকে দিয়ে আইপিএল ২০২০-তে অবিশ্বাস্য পারফরমেন্স করছে রাজস্থান রয়্যালস। পরপর দুটি ম্য়াচেই দুশোর উপর রান করেছে স্টিভ স্মিথ ব্রিগেড। শুধু তাই নয় দ্বিতীয় ম্য়াচে সারজায় ২২৩ রান চেজ করে জিতেছে রয়্যালসরা। যা আইপিএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ চেজ। বিধ্বংসী ফর্মে রয়েছেন স্টিভ স্মিথ, সঞ্জু স্যামসন, রাহুল তেওয়াটিয়ারা। যদিও বোলিং লাইনআপ নিয়ে কিছুটা চিন্তায় রয়েছে রাজস্থান টিম ম্য়ানেজমেন্ট। কারণ প্রথম দুটি ম্যাতে দল যেমন দুশোর বেশি রান করেছে, ঠিক তেমনই প্রতি ম্য়াচে দুশো বা তার বেশি রান দিয়েছে বোলাররা। একইসঙ্গে আরও একটি বিষয় ভাবাচ্ছে রাজস্থান রয়্যালসকে, তা হল মাঠ। কারণ প্রথম দুটি ম্যাচ শারজায় খেলেছে দল। কেকেআরের বিরুদ্ধে খেলতে হবে দুবাইতে। ফলে শারজার থেকে অনেকটা বড় মাঠ ও পরিস্থিতিও আলাদা। যদিও দলের আত্মবিশ্বাস যেই জায়গায় রয়েছে, তাতে কেকেআর বিরুদ্ধে জয় ছাড়া কিছুই ভাবছে না স্টিভ স্মিথের দল।

অপরদিকে,তৃতীয় ম্যাচে জয় তুলে নিতে বদ্ধপরিকর কলকতা নাইট রাইডার্স।  প্রথম ম্যাচ হারলেও, দ্বিতীয় ম্যাচে দল জয়ে ফিরেছে। বেড়েছে আত্মবিশ্বাসও। শুভমান গিল, ইয়ন মর্গ্যানদের রানে ফেরা স্বস্তিতে রেখেছে দলকে। কিন্তু শুভমান গিল ও সুনীল নারিনের নাইটদের ওপেনিং জুটি এখনও পর্যন্ত কিল্ক করেনি। সুনীল নারিন যে ঝোড়ো গতিতে রান তুলে দিয়ে যান, তা এখনও করতে পারেননিষ এছাড়াও পুরোপুরি ফর্মে ফেরার অপেক্ষায় রয়েছেন অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকও। দ্বিতীয় ম্য়াচে সুযোগ না পেলেও, রাসেলের ব্যাটে বড় রান দেখার অপেক্ষায় রয়েছে কেকেআর সমর্থকরা। পাশাপাশি দ্বিতীয় দুরন্ত পারফরমেন্স করেছিল কেকেআরের বোলিং বিভাগ। ছন্দে ফিরেছে প্যাট কামিন্স। বাল বোলিং করছেন শিবম মাবি, কমলেশ নাগোরকোটিও। স্পিন অ্যাটাকে গত ম্যাচে নজর কেড়েছেন বরুণ চক্রবর্তী। সঙ্গে রয়েছেন নারিন। ফলে সব মিলিয়ে রাজস্থান রয়্যালস বধের জন্য ঘুঁটি প্রস্তুত রয়েছে কেকেআরের।

পিচ ও ওয়েদার রিপোর্ট-
কেকেআর বনাম রাজস্থান রয়্যালস ম্যাচে দুবাই ইন্টারন্য়াশানাল স্টেডিয়ামের পিচ ব্য়াটিং সহায়ক হতে চলেছে। যত প্রতিযোগিতা এগোচ্ছে উইকেচ ততই ব্যাটিং সহায়ক হয়ে উঠছে। যদিও মাঠ আয়তনে বড় হওয়ায় স্পিনাররা কিছুটা সুবিধা পেতে পারে। টসে জিতে ব্যাটিং করে বড় রান করাটাই বেশি সেফ মনে করা হচ্ছে। দুবাই আবহাওয়া আজ ৩৬ ডিগ্রির আশেপাশে ঘোরাফেরা করবে। একইসঙ্গে আদ্রতাজনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে বলেও জানানো হয়েছে হাওয়া অফিসের তরফে।

ম্যাচ প্রেডিকশন-
দুই দলই দুবাইতে তাদের প্রথম ম্যাচ খেলবে। কিন্তু রাজস্থান তাদের শেষ দুটি ম্যাচ খেলেছে শারজায়। যেখানে মাছ ছোট ও উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য পাটা। কিন্তু দুবাইতে বল একটু থমকে আসবে ও মাঠও বড়। ফলে তা কিছুটা সমস্যা হতে পারে রাজস্থানের। অপরদিকে কেকেআর আবুধাবিতে খেললেও, আবুধানবি ও দুবাইয়ের পরিস্থিতি খুব একটা আলাদা নয়। ফলে কেকেআরের খুব একটা সমস্যা হওয়ার কথা নয়। পাশাপাশি বোলিং লাইন রাজস্থানের থেকে বেশি ভাল বলে মনে করা হচ্ছে। সবদিক বিচার করে এই ম্যাচ কেকেআর জিতবে বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে।