আজ আইএসএলের দ্বিতীয় ডার্বিতে মুখোমুখি হতে চলেছে এসসি ইস্টবেঙ্গল ও এটিকে মোহনবাগান। গত ২৭ নভেম্বর প্রথম আইএসএলের ইতিহাসের প্রথম ডার্বিতে ২-০ গোলে হারের মুখ দেখতে হয়েছিল রবি ফাউলারের দলকে। শেষ চারে পৌছোনোর কোনও আশা না থাকলেও, এই মেগা ম্য়াচ জিতে সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটাতে চায় ইস্টবেঙ্গল প্লেয়াররা। অপরদিকে, ফিরতি ডার্বিতে জিতে প্রথম স্থান আরও পাকা করাই শুধু নয়, চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ালিফাইয়ের জন্যও আরও এক পা এগিয়ে রাখতে চাইছে অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাসের দল।

ম্যাচ জিতে এটিকে মোহনবাগানের লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কোয়ালিফাই-
বর্তমানে ১৭ ম্যাচে ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে রয়েছে সবুজ-মেরুণ ব্রিগেড। শেষ চারের টিকিট পাকা হয়ে গিয়েছে দলের। তারপরও ডার্বি নিয়ে খবুই সিরিয়াস বাগান কোচ হাবাস। প্রতিপক্ষকে যথেষ্ট সমীহ করছেন তিনি। জানিয়েছেন,'এটা একটা ভিন্ন ম্যাচ আর ভিন্ন পরিস্থিতিতেও আমাদের লক্ষ্য তিন পয়েন্ট। আমরা ম্যাচটা জিততে চাই। তবে ইস্টবেঙ্গলও দারুণ দল।' আক্রমণ ও রক্ষণ মিলিয়ে টোটাল ফুটবল খেলেই আরও একবার ইস্টবেঙ্গল বধের ছক কষছেন বাদানের স্প্যানিশ কোচ। তিনি বলেছেন, 'আমাদের ভাবনায় দুইই রয়েছে। যখন আমাদের পায়ে বল থাকবে তখন আক্রমণে যাব, আবার যখন বিপক্ষের পায়ে বল থাকবে তখন রক্ষণ ভাল করে সামলাতে হবে। এই রূপান্তরের বিষয়টাই ফুটবলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।'তবে ম্যাচ যে হাড্ডাহাড্ডি হতে চলেছে এবিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই বলেও জানিয়ে দিয়েছেন হাবাস। গোলের জন্য মোহনবাগানের প্রধান অস্ত্র রয় কৃষ্ণা। মরসুমে ১৩টি গোল করে ফেলেছেন তিনি। ডার্বিতেও গোল করার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। রয় কৃষ্ণা ভূয়সী প্রশাংসা করলেও, শুধু রয় কৃষ্ণার নির্ভরতা কাটিয়ে দলের অন্য়ান্য স্কোরারদেরও বাড়তি দায়িত্ব নেওয়ার কথা বলেছেন হাবাস। ফলে টিম গেম খেলেই ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে ৩ পয়েন্ট নিতে মরিয়া এটিকে মোহনবাগান।

ম্যাচ জিতে এসসি ইস্টবেঙ্গলের লক্ষ্য সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটানো-
অপরদিকে, ৯ ম্য়াচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের নবম স্থানে রয়েছে এসসি ইস্টবেঙ্গল। এই ম্যাচ জিতে সমর্থকদের কাছে মরসুম শেষের আগে মাথা কিছুটা উচু করে রাখতে চাইছেন লাল-হলুদ প্লেয়াররা। কিন্তু এই ম্য়াচেও নির্বাসনের কারমে ডাগআউটে থাকতে পারবেন না রবি ফাউলার। সহকারি গ্রান্ট সামলাবেন কোচের দায়িত্ব। এছাড়া ব্রাইট থাকলেও, গোলের খরা ও রক্ষণের দুর্বলতা সমস্যার কারণ রয়েছে গোটা মরসুম জুড়ে। তাই বড় ম্যাচের আদে যতটা সম্ভব সেই সমস্যা মেরামতির করার চেষ্টা হয়েছে। তবে ম্য়াচের আগে আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা গিয়েছে লাল-হলুদ প্লেয়ারদের মুখেও। দলের তারকা প্লেয়ার মাঘোমা জানিয়েছেন,'আগের বারের থেকে এবারের ডার্বিতে আমাদের শক্তি বেড়েছে। শুক্রবারের ডার্বিতে আমরা ভাল করবো বলেই মনে হয়। এটিকে মোহনবাগানের জন্য ম্যাচটা কঠিন হবে।' এছাড়াও এটা প্রথম ডার্বি হতে চলেছে ব্রাইট অনোবাখারের জন্য। ভারতীয় সতীর্থদের কাছ থেকে শুনেছেন ডার্বির মাহাত্ম্য। তার সঙ্গে যে রয় কৃষ্ণার লড়াই সে কথা জানেন ব্রাইট। তবে সেসব নিয়ে না ভেবে নিজের সেরাটা উজার করে ডার্বিতে গোল করাই লক্ষ্য ব্রাইটের। এই ডার্বি জেতার জন্য নিজেদের সেরাটা দিতে প্রস্তুত মাঘোমা, স্টেইনম্যান, পিলকিংটন, ফক্স, অঙ্কিত মুখার্জি, সৌরভ দাসরা।

ম্য়াচ প্রেডিকশন-
গোটা মরসুম জুড়ে দুরন্ত পারফর্ম করেছে এটিকে মোহনবাগান। চ্য়াম্পিয়ন হওয়ার অন্যতম দাবিদার অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাসের দল। আক্রমণ-মাঝমাঠ থেকে রক্ষণ সব বিভাগেই ইস্টবেঙ্গলের থেকে এগিয়ে সবুজ-মেরুণ ব্রিগেড। গোল স্কোরিংয়ে রয় কৃষ্ণা, মার্সেলিনহোদের দুরন্ত ফর্ম। সব বিভাগেই এগিয়ে মোহনবাগান। অপরদিকে, গোটা মরসুমে ছন্দে খুণজে পায়নি এসসি ইস্টবেঙ্গল। ধারাবাহিকতার অভাব ভুগিয়েছে গোটা দলকে। রক্ষণ-মাঝমাঠ থেকে আক্রমণ সব বিবাগেই রয়েছে সমস্যা। তাই মরসুমের দ্বিতীয় ডার্বিতে এটিকে মোহনবাগানকেই এগিয়ে রাখছেন ফুটবল বিশেষজ্ঞরা।