উত্তমা চক্রবর্তী, জলপাইগুড়ি: জাতীয় সড়কে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, প্রাণ হারালেন পূর্ত দপ্তরের সাব অ্যাসিস্ট্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার। গুরুতর জখম হয়েছেন আরও দু'জন। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তাঁরা। দুর্ঘটনা ঘটেছে জলপাইগুড়ির মালবাজারে, ৩১ নম্বর জাতীয় সড়কে।

আরও পড়ুন: গৃহস্থের সুপারি বাগানে 'মরণফাঁদ', বেঘোরে প্রাণ গেল হস্তিশাবকের

মৃতের নাম সঞ্জীব চক্রবর্তী। বাড়ি, জলপাইগুড়ি শহরের কদমতলা দুর্গাবাড়ি এলাকায়। পূর্ত দপ্তরে সাব অ্যাসিস্ট্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার পদে কর্মরত ছিলেন। মঙ্গলবার রাতে একটি ছোট গাড়ি চেপে জাতীয় সড়ক ধরে মালবাজার মহকুমার চালসা থেকে বাতাবাড়ি দিকে যাচ্ছিলেন সঞ্জীববাবু। ধুপঝোরা মোড়ের কাছে উল্টো দিক থেকে এসে ছোট গাড়িকে সজোরে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায় অন্য একটি গাড়ি। সংঘর্ষের অভিঘাত এতটাই ছিল যে, ছোট গাড়িটির সামনের দিকে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। গাড়ির সামনের দিকে বসেছিলেন দু'জন আর পিছনে একজন।  চাপা পড়েন তিনজনই।  খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান মেটেলি থানার ওসি মুরালি মোহন সাহা ও জলপাইগুড়ি রেসকিউ টিমের কর্ণধার স্বরূপ মণ্ডল। 

আরও পড়ুন: নেশার ঘোরে কলকাতার রাস্তায় অর্ধনগ্ন হলেন তরুণী, তারপরের ঘটনা জানতে দেখুন ভিডিও

দুর্ঘটনাগ্রস্থ গাড়িটির নিচে যাঁরা চাপা পড়েছিলেন, তাঁদের টেনে বের করা হয়।  তিনজনকেই নিয়ে যাওয়া  হয় স্থানীয় মঙ্গলবাড়ি গ্রামীণ হাসপাতালে। হাসপাতালে পূর্ত দপ্তরের সাব অ্যাসিস্ট্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার সঞ্জীব চক্রবতীকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। বাকি দু'জনের অবস্থাও আশঙ্কাজনক। তাঁদের শিলিগুড়ির একটি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। পরিচয় এখনএ জানা যায়নি।  দুর্ঘটনাগ্রস্থ গাড়িটিকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘাতক গাড়িটির সন্ধান চলছে।