কোনওভাবেই বাগে আনা যাাচ্ছে না পরিস্থিতি। রাজ্য়ের সঙ্গে প্রতিদিনই পাল্লা দিয়ে  করোনা রোগী বাড়ছে মহানগরে। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্য়া কমলেও আক্রান্তের সংখ্য়া চিন্তায় রাখছে কলকাতাবাসীকে। রাজ্য় স্বাস্থ্য় দফতরের বুলেটিন বলছে, একদিনে কলকাতায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬৩ জন। রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ৫১ জনের। যার মধ্যে শুধু কলকাতারই ১৩ জন। সংখ্য়ার দিক থেকে খুব একটা পিছিয়ে নেই উত্তর ২৪ পরগনা। সেখানে মৃতের সংখ্যা ১০ জন।

পাশাপাশি দক্ষিণ ২৪ পরগনায় মারা গিয়েছেন ৪ জন৷ এছাড়াও  হাওড়ায় ৯ জন, হুগলিতে ১ জন, পূর্ব বর্ধমানে ২ জন মারা গিয়েছেন সংক্রমণে।  পূর্ব মেদিনীপুর থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গিয়েছেন ৩ জন৷ অন্য়দিকে, নদিয়ায় ,মালদায় এদিন করোনা নিয়ে মারা গিয়েছেন ১ জন৷  জলপাইগুড়ি ২ জন ও দার্জিলিংয়ে ৫ জন৷ 

রাজ্য়ের আক্রান্তের পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে বোঝা যাবে,  রাজ্যে আক্রান্তের ৩,০৬৬ জনের মধ্য়ে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনাতেই আক্রান্তের সংখ্যা ১,১৬৩ জনে পৌঁছেছে। পাশাপাশি হাওড়ায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৭৯ জন। আক্রান্তের সংখ্যায় এগিয়ে গিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা। এখানে আক্রান্ত ২১১ জন। হুগলিতে ১৭৯ জন। 

এদিকে স্বাস্থ্য় দফতরের বুলেটিন বলছে, রাজ্য়ে সামান্য় কমেছে মৃতের সংখ্যা। যদিও একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে তিন হাজার। গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্য়ে মৃত্যু হয়েছে ৫১ জনের৷ শনিবার যেই সংখ্যাটা ছিল ৫৮ জনে৷ পরিসংখ্য়ান বলছে সব মিলিয়ে এখন রাজ্য়ে মৃতের সংখ্যা ২,৪২৮ জন। 

রাজ্য়ের করোনা বুলেটিনের তথ্য় অনুযায়ী, গত একদিনে রাজ্য়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৩,০৬৬ জন৷ শনিবার যা ছিল ৩,০৭৪ জন৷ এখনও পর্যন্ত রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১,১৬,৪৯৮ জন৷ পশ্চিমবঙ্গে এখন অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭,২৯৯ জন৷ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন ২,৯৩৫ জন৷  রাজ্য়ে সব মিলিয়ে মোট সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা ৮৬,৭৭১ জন৷

তবে আশার বিষয়, বর্তমানে রাজ্য়ে সুস্থ হয়ে ওঠার হার বেড়ে দাড়িয়েছে ৭৪.৪৮ শতাংশ৷  আগে যা ছিল ৭৩.৯১ শতাংশ৷ শুক্রবার ছিল ৭৩.৫৭ শতাংশ৷ এদিন অবশ্য় টেস্টের সংখ্যা কমেছে বাংলায়। একদিনে রাজ্য়ে টেস্ট হয়েছে ৩২,২৮৬ টি৷ শনিবার এই সংখ্যাটা ছিল ৩৪ ,২১৪ টি৷ এখনও পর্যন্ত রাজ্য়ে  করোনা টেস্ট হয়েছে ১৩, ১৪, ৭৭২জনের৷ কেন্দ্রীয় সরকার অবশ্য় বার বার এই টেস্টের সংখ্য়া ডবলের পর্যায়ে নিয়ে যেতে বলছে।