ফের গর্ভপাত করিয়ে প্রতারণা করার অভিযোগ উঠল সারোগেট মা-এর বিরুদ্ধে। চুক্তি হয়েছিল আট লক্ষ টাকার। তিন লক্ষ ৭৬ হাজার টাকা হাতে পাওয়ার পর মাত্র চার হাজার টাকা খরচ করলেই বাকি টাকাটা হাতিয়ে নেওয়া যাবে। এটা ভেবেই এক ভুয়ো চিকিৎসককে দিয়ে ২৬ সপ্তাহের গর্ভস্থ ভ্রূণকে হত্যা করায় সারোগেট মাদার। 

আরও পড়ুন, বিমানবন্দরের থার্মাল স্ক্রিনিং-এ করোনা উপস্বর্গ যুবকের, মুহূর্তেই হাসপাতালে ভর্তি

সূত্রের খবর, পরে তথ্য-প্রমাণ লোপাট করতে নাম ভাঁড়িয়ে সেই গর্ভদাত্রী মা-ই ভর্তি হয়েছিল ডায়মন্ড হারবার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। নিউ আলিপুর থানার সারোগেসি-প্রতারণার পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছে এমনই ভয়ঙ্কর তথ্য। ইতিমধ্যেই  গ্রেফতার করা হয়েছে   ওই গর্ভদাত্রী মা কাশ্মীরাকে এবং মোল্লাডায়মন্ড হারবার মন্দিরবাজার এলাকার গোপাল মালিক নামে ওই ভুয়ো চিকিৎসককেও। 

আরও পড়ুন, বিমানবন্দরের থার্মাল স্ক্রিনিং-এ করোনা উপস্বর্গ যুবকের, মুহূর্তেই হাসপাতালে ভর্তি

জানা গিয়েছে, গোপালের সঙ্গে কাশ্মীরার পরিচয় করিয়ে দেওয়ায় জন্য গ্রেফতার করা হয়েছে আজিজুর রহমান নামে আর এক জনকেও। পুলিশি জানা গিয়েছে, গোপাল উচ্চ মাধ্যমিক পাশ। একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিন বছর ওটি-কর্মী হিসেবে কাজ করেছে সে। সেই অভিজ্ঞতা দিয়েই সে প্রতিদিন বেআইনিভাবে ২৫ থেকে ৩০ জন রোগী দেখত। মন্দিরবাজার এলাকায় নিজের ছয় কামরার বাড়িতে আট শয্যার একটি হাসপাতালও বানিয়েছিল। পুলিশের দাবি, 'গোপাল জেরায় বলেছে, বহু মহিলাকেই সে এ ভাবে সাহায্য করে থাকে। কাশ্মীরার কাছ থেকে তার চার হাজার টাকা পাওয়ার কথা ছিল।' উল্লেখ্য়  গর্ভ ভাড়া দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছিল গত মাসের শেষেও এক সারোগেটেড মায়ের বিরুদ্ধে। সেবারও অভিযুক্ত মহিলাকে গ্রেফতার করেছিল নিউ আলিপুর থানার পুলিশ। বারবার একই ঘটনা পুনরাবৃত্তি হওয়ায় নড়ে চড়ে বসেছে রাজ্য় পুলিশ প্রশাসন।

আরও পড়ুন, করোনা মোকাবিলায় তৈরি শহরের আরও এক হাসপাতাল, এসএসকেম-এ চালু হবে আইসোলেশন ওয়ার্ড