বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার গাড়িরতে হামলার অভিযোগে এখনও পর্যন্ত তিনটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সাত জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেই রাজ্য পুলিশ সূত্রে খবর। বৃহস্পতিবার ডায়মন্ড হারবার যাওয়ার পথে বিজেপি নেতার কনভয় লক্ষ্য করে ইট পাথর ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় বিজেপি নেতা জেপি নাড্ডার কোনও ক্ষতি হয়নি বলেও জানিয়েছে রাজ্য পুলিশ। পাশাপাশি গতকাল রাজ্যপুলিশ জানিয়েছিল কনভয় নিরাপদেই গন্তব্যে পৌঁছে। পুরো ঘটনা তদন্ত করে দেখা হবে বলেও জানান হয়েছিল রাজ্যপ্রশাসনের তরফ থেকে। যদিও  বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র গাড়ির উইন্ডস্ক্রিন ভেঙে গেছে বলে দাবি করা হয়েছে। 

সূত্রের খরব, কনভয়ে পাথর ছোঁড়ার অভিযোগে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করেছে রাজ্যপুলিশ। তৃতীয় এফআইআরটি দায়ের করা হয়েছে, বিজেপি নেতা রাকেশ সিং-এর বিরুদ্ধে। কনভয়ের প্রথম দিকেই ছিল রাকেশ সিংএর গাড়ি। অভিযোগ ওই বিজেপি নেতা দেবীপুর ও শিরাকোল এলাকায় জনতার উদ্দেশ্যে উস্কানিমূলক আচরণ করেছিলেন। যদিও এই হামলার ঘটনায় কাদের গ্রেফতার করা হয়েছে সেসম্পর্কে এখনও পর্যন্ত কোনও তথ্য দেয়নি পুলিশ। 

বৃহস্পতিবা জেপি নাড্ডাক কনভয়ে হামলার ঘটনার পর থেকেই উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্যরাজনীতি। আর সেই সঙ্গে আরও একবার প্রকোট হয়ে ওঠে কেন্দ্র রাজ্য সংঘাত। কেন্দ্রের পক্ষ থেকে এই হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করা হয়। পাশাপাশি রাজ্য থেকে দুটি রিপোর্ট তলব করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। আর এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন রাজ্যের তৃণমূল নেতৃত্ব। পাশাপাশি রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ও হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন।  তিনি জানিয়েছে বিজেপি নেতার গাড়িতে হামলার ঘটনার ওপর একটি রিপোর্টও তিনি কেন্দ্রকে পাঠিয়েছেন। যদিও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী এই হামলার ঘটনাকে তেমন গুরুত্ব দিতে রাজি নন।