কোভিডের মাঝেই মাথা দিল ব্ল্যাক ফাংগাস আতঙ্ক। পশ্চিমবঙ্গে কোভিডজয়ী ৪ জন রোগী এই বিরল রোগীর শরীরে ব্ল্যাক ফাংগাস বা মিউকরমাইকোসিসের হদিশ মিলেছে। এই মুহূর্তে তাঁদের মধ্যে দুইজন দুর্গাপুরের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

আরও পড়ুন, কোভিডে ফের লাগামছাড়া মৃত্যু বাংলায়, লকডাউনে টিকা কেন্দ্রে যাওয়া নিয়ে বাড়ল আশঙ্কা 


 ব্ল্যাক ফাংগাস বা মিউকরমাইকোসিস এই বিরল রোগে আক্রান্ত ওই ৪ জন রোগীই বিহার এবং ঝাড়খন্ডের সঙ্গে যুক্ত। এবং আক্রান্ত ৪ জনের ৩ জন পুরুষ এবং ১ জন মহিলা। প্রত্যেক পুরুষের বয়েস ৫০ এর মধ্য়ে এবং শুধু মহিলাটি বয়েস ৬৫ বছর। তাঁদের এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার রিপোর্ট পাঠিয়েছে রাজ্যে একটি চক্ষু হাসপাতাল। তাঁদের এই সংক্রমণ ধরা পড়ে ৭ মে থেকে ১৩ মে-র মধ্য়ে। এবং এখানে আশঙ্কার বিষয় এটাই যে এই  ৪ জন রোগীই আগে আক্রান্ত হয়েছিলেন কোভিডে। কোভিড থেকে সেরে উঠতেই আক্রান্ত হন  ব্ল্যাক ফাংগাস বা মিউকরমাইকোসিস বিরল রোগে। তাই কোভিডজয়ী হলেও সতর্ক থাকতে হবে সবসময়ই।

আরও পড়ুন, দ্বিতীয়বার করোনা আক্রান্ত হলেন অগ্নিমিত্রা পাল, আসানসোলবাসীকে দিলেন সতর্কবার্তা 

 


 চক্ষু হাসপাতালের সিএমডি দেবাশিস ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, 'নওয়াদা, দুমকা, ঝাড়খন্ডের অন্য একটি শহর থেকে ৩ জন মুখে ব্যাথা এবং ক্ষীণ দৃষ্টির উপসর্গ নিয়ে আমাদের হাসপাতালে আসেন। চতুর্থজন বিহারের ভাগলপুর থেকে অনলাইনে নিজের সমস্যার কথা জানান। ৪ জনের মধ্যে প্রত্যেকেই করোনা থেকে সেরে উঠেছেন। মিউকরমাইকোসিস রোগীদের উন্নত চিকিৎসার কারণে ২ জনকে দুর্গাপুর বেঙ্গল হেলথ ওয়ার্ল্ড হসপিটালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। তাঁরা এখন ভালো আছেন। যদি কোনও সমস্যা হয় তবে আমাদের দিক থেকে সকলরকম সাহায্য় পাবেন।' উল্লেখ্য মিউকরমাইকোসিস এই বিরল রোগ মিউকরমাইসেটিস ফাঙ্গি থেকে হয় । যা আমাদের সরাসরি মস্তিষ্ক, সাইনাস এবং ফুসফুসকে আক্রমণ করে। সাইনাসের যন্ত্রণা, নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া, মাথা ব্যাথা, ফোলা ভাব, দাঁতে ব্যাথা এই রোগের প্রথামিক উপসর্গ। ডায়বেটিকদের ক্ষেত্রে এই রোগ খুব আশঙ্কা জনক। 

 

আরও পড়ুন, Live Covid 19- লকডাউনে শহরে চলছে নাকা চেকিং, ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে বার্তা পুরসভার