কলকাতায় করোনা সন্দেহে একাধিক উপসর্গ নিয়ে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করা হল মার্কিন নাগরিককে। ইতিমধ্যেই আইসোলেশনে রেখে তার চিকিৎসা শুরু করা হয়েছে। তবে শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, এখনও তাঁর রক্ত পরীক্ষা হয়নি। প্রাথমিকভাবে ওই ব্যক্তি উপর্সগ দেখে করোনা আক্রান্ত বলেই মনে করছেন চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন, পার্ক সার্কাসে সিএএ বিরোধী মঞ্চে মৃত্যু আন্দোলনকারীর, নীরব প্রতিবাদের সিদ্ধান্ত

সূত্রের খবর, ওই মার্কিন নাগরিকের নাম মার্ক টুলিও। জানুয়ারি মাসের ২১ তারিখ থাইল্যান্ড থেকে ভারতে আসেন ওই মার্কিন নাগরিক। সেই থেকে ভারতেই ছিলেন। রবিবার সকালে অসুস্থ অবস্থায় পার্ক স্ট্রিট চত্বরে ঘুরছিলেন তিনি। তাঁর উপসর্গ দেখে  এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সদস্যদের সন্দেহ হয়। তাঁরাই ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। প্রথমে ওই ব্যক্তিকে আইসোলেশন বিভাগে রেখে পরীক্ষা করা হয়। পরে সেখানেই ভর্তি নিয়ে নেওয়া হয় মার্ক টুলিও নামের ওই মার্কিনিকে। ইতিমধ্যেই তাঁর শুরু চিকিৎসা হয়েছে  , কিন্তু এখনও রক্তপরীক্ষা বাকি। তাই  তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কি না, সে বিষয়ে  এখনও কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন, জাঁকিয়ে শীত কলকাতায়, শিলাবৃষ্টির সম্ভাবনা উত্তর ভারতে

অপরদিকে, গত  ২৭ জানুয়ারি জ্বর নিয়ে বছর আঠাশের চিনা যুবতী জো হুয়ামিন রবিবার ভর্তি হন বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। করোনা আক্রান্ত সন্দেহে তাঁকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা শুরু করা হয়। যদিও শারীরিক পরীক্ষায় করোনা ভাইরাসের নমুনা মেলেনি বলেই জানিয়ে দেন চিকিৎসকরা। সম্প্রতি করোনা আতঙ্কে রীতিমতো সতর্ক  প্রশাসন। ইতিমধ্যেই কলকাতাতে রোগ নির্ণয়ের পরীক্ষা শুরু করা হয়েছে। বেলেঘাটর নাইসেডে শুক্রবার থেকে পরীক্ষার জন্য পরিকাঠামো প্রস্তুত হয়ে গিয়েছে। এর আগে পর্যন্ত পুনের ন্যাশনাল ইনস্টটিউট অফ ভাইরোলজিতে পরীক্ষার জন্য পাঠাতে হত। সেখানেই একমাত্র নোভেল করোনা ভাইরাস আছে কি না, তা সনাক্ত করা হতো। কিন্তু এবার থেকে নাইসেডেই অর্থাৎ ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ কলেরা অ্যান্ড এন্টারিক ডিজিজ -এর ল্যাবরেটরিতে সেই পরীক্ষা হবে রোগীর সোয়াব সংগ্রহ করা হবে ।