বাংলাদেশ থেকে কলকাতা বইমেলায় এসে পাসপোর্ট সহ লক্ষাধিক টাকা খোয়ালেন বই ব্য়বসায়ী। বাংলাদেশের ঢাকার বাসিন্দা, খাইরুল হাসান সাজু জানিয়েছেন, এত বছর ধরে তিনি কলকাতা বইমেলা, নন্দনের বাংলাদেশ বইমেলায় এসেছেন, কিন্তু এমন ঘটনা কখনও আগে হয়নি। গোটা ঘটনায় তিনি স্তম্ভিত। ভাবতেও পারেননি যে এমনটা হতে পারে। দিশাহারা লাগছে সবকিছু হারিয়ে, জানালেন ঢাকার ওই বাসিন্দা।

আরও পড়ুন, করোনার উপসর্গ না থাকলেও সহযাত্রীদের ভর্তির নির্দেশ, কড়া পদক্ষেপ কেন্দ্রের


বাংলাদেশের জনপ্রিয় দিব্য় প্রকাশনীর তরফে প্রতি বছর আসেন বছর আটত্রিশের ওই ব্য়বসায়ী। ঘটনাটি ঘটে দুপুরবেলা। বেশ ভিড় তখন তার বুকস্টলে। টেবিলের পাশ থেকে বই বার করতে গিয়েই তিনি দেখেন তাঁর চেয়ারের পাশে রাখা ব্য়াগ উধাও। এরপর নিরাপত্তারক্ষীরা কয়েকজনের ব্য়াগ চেক করলেও শেষ অবধি আর সেটা পাওয়া যায়নি। খাইরুল হাসান সাজু জানিয়েছেন, সামনের ১১ ফেব্রুয়ারী শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্নায়ু চিকিৎসকের কাছে অ্য়াপয়েন্টমেন্ট নেওয়া আছে তাঁর। ডাক্টার দেখানো এবং আনুষাঙ্গিক সব কিছু মিলিয়ে বেশ কিছু টাকা সঙ্গে রেখেছিলেন তিনি। কিন্তু সব কিছু হারিয়ে কার্যত এখন তিনি দিশেহারা। 

আরও পড়ুন, শহরে ফের পেটিএম প্রতারণা, গ্রেফতার ৫

এই ঘটনার পর মেলা গিল্ড কর্তৃপক্ষকে খাইরুল হাসান সাজু গোটা বিষয়টি জানিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন কন্ট্রোল রুমে। এরপর তিনি বিধাননগর থানায় ডায়েরিও করেছেন। কিন্তু টাকার ব্য়াগ সহ পাসপোর্ট ফিরে পাবেন কিনা এনিয়ে যথেষ্টই ধন্দে পড়েছেন বাংলাদেশের ওই বই ব্য়বসায়ী। তিনি বলেছেন, টাকা তো গেলই, অন্তত পাসপোর্টটা যদি কোনওভাবে ফেরত না পাই ভয়ঙ্কর সমস্য়ায় পড়তে হবে। নিজের দেশে ফিরতে অনেক অসুবিধার সম্মুখীন হতে হবে, আক্ষেপ দিব্য় প্রকাশনীর মার্কেটিং ম্য়ানেজারের।