২৬ ডিসেম্বর সূর্যগ্রহণের সাক্ষী থাকছে দেশবাসি। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে দেখা যাচ্ছে এই বলয়গ্রাস। বৃহস্পতিবার সকাল ৮.২৭ নাগাদ শুরু হয় সূর্যগ্রহণ। আংশিক বলয় গ্রাসের সাক্ষী থাকছে কলকাতা। এদিন সকাল থেকেই  বিড়লা প্লানেটরিয়মে ভিড় জমায় অনেকেই। দূরবীন চোখে রেখে চলতে থাকে সূর্যগ্রহণের সাক্ষী থাকার পালা। 

তবে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আকাশে মুখ ভার। আংশিক মেঘলা আকাশ থাকার জন্য মাঝে মাঝে দেখা যাচ্ছে এই গ্রহণ। টানা তিন ঘন্টা ধরে চলবে এই সর্যগ্রহণ। সকাল ৯.৫৩ মিনিটে পূর্ণ গ্রাস। এই সময়ই রিং দেখা যাবে ভারতের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে। আংশিক সূর্যগ্রহণে সাক্ষী থাকছে দক্ষিণ ভারতও। দার্জিলিং ও কোচবিহারের বেশ কিছু জায়গা থেকেও দেখা যাচ্ছে এই গ্রহণ। ১১.৩১ পর্যন্ত চলবে এই গ্রহণ।   

আরও পড়ুনঃ বড় দিনের পরেও থাকছে উপহার, ১৭২ বছর পর কলকাতা দেখবে রিং অব ফায়ার

দুবাইতে ইতিমধ্যেই হয়ে গিয়েছে পূর্ণগ্রাস। বলয়গ্রাসের সাক্ষী থাকল দুবাই। প্রথম দেখা যায় এই গ্রহণ আরব সাগরের ওমান উপত্যকা থেকে প্রথম দেখা যায়। তবে বিশেষজ্ঞের মতাে খালি চোখে না দেখাই উচিত এই সূর্যগ্রহণ। আকাশের মেঘ কাটছে। ফলে আশাবাদী কলকাতা, বলয় গ্রাসের সাক্ষী থাকার আশায় ভিড় জমছে বিরলা মন্দিরে। বছর শেষ সূর্যগ্রহণ, সাক্ষী থাকছে গোটা বিশ্ব।