শুভজিৎ পুততুণ্ড, বারাসত-রাজ্য সফরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সফরের প্রথম দিনে বাঁকুড়ায় গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে রবীন্দ্রভবনে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করেন অমিত শাহ। তারপর, সেখান থেকে চতুরাডিহি গ্রামে আদিবাসী দলীয় কর্মীর বাড়িতে মধ্য়াহ্নভোজন করেন তিনি। ভাত-ডাল-ভাজা-পাঁচমেশালি সবজি খেয়েছেন বিজেপির শীর্ষ নেতা। এবার সফরের দ্বিতীয় দিনে মতুয়া মহাসঙ্ঘের সদস্যের বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজন করবেন তিনি। তার আগে নিউটাউনের জ্যোর্তিময়ী মন্দিরে সাজোসাজো রব। 

আরও পড়ুন-মেনুতে ভাত-ডাল-পাঁচমেশালি সবজি-ভাজা, বাঁকুড়ায় আদিবাসী বিজেপি কর্মীর বাড়িতে শাহর মধ্যাহ্নভোজ

শুক্রবার দুপুরে নিউটাউনে মতুয়া মহাসঙ্ঘের মন্দিরে পুজো দেবেন অমিত শাহ। এদিনই মতুয়া সঙ্ঘের এক সদস্যের বাড়িতে মধ্য়াহ্নভোজনও করবেন তিনি। এই অবস্থায় নিউটাউনের জ্যোতিনগরে সাজোসাজো রব। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর ঘিরে প্রস্তুতি তুঙ্গে। এলাকার রাস্তা বিজেপি পতাকা লাগানো হয়েছে। রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় বসেছে অমিত শাহের হোর্ডিং।

আরও পড়ুন-কালীপুজোতেও দর্শক শূন্য মণ্ডপ, বাজি পোড়ানো-বিক্রি পুরোপুরি নিষিদ্ধ, নির্দেশ হাইকোর্টের

অমিত শাহের সফর ঘিরে প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে। জ্যোতিনগরের মতুয়া মহাসঙ্ঘের এক সদস্য জানান, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রবেশ করলেই ফুলের থালা নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকবেন মহিলারা। তাঁর উপর পুষ্প বৃষ্টি করার আয়োজন করা হয়েছে। মন্দিরে প্রবেশ করার পর তাঁর জন্য আলাদা বসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে পুজো দেবেন অমিত শাহ। এরপর, মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে অমিত শাহকে একটি স্মারকলিপি দেওয়া হবে। সেখানে দুটি দাবি জানিয়েছেন মন্দির কর্তৃপক্ষ। তাঁদের দাবি, নাগরিকত্ব আইনে দ্রুত নাগরিকত্ব প্রদান করতে হবে। নিঃশর্ত সেই নাগরিকত্ব দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে। অন্যদিকে, কেষ্টপুর থেকে বাগজোলা খাল ধার পর্যন্ত রাস্তার নাম শ্রী শ্রী গুরুচাঁদ ঠাকুর সরণি করার দাবি জানিয়েছেন মন্দির কর্তৃপক্ষ।